২০ দিন ধরে নিখোঁজ পাতিদার আন্দোলনের নেতা হার্দিক প্যাটেল, দাবি তাঁর স্ত্রীর

Image Source: Google

বিশেষ প্রতিবেদনঃ গুজরাটঃ গুজরাটের পাতিদার আন্দোলনের মুখ হার্দিক প্যাটেল ২০ দিন ধরে নিখোঁজ। আর এর পেছনে প্রশাসনের ষড়যন্ত্র রয়েছে। এমনটাই দাবি করেছেন হার্দিকের স্ত্রী কিঞ্জল প্যাটেল। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি পোস্ট করে লিখেছেন, “গত ২০ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন আমার স্বামী। তিনি কোথায় আছেন? কী করছেন? সেই বিষয়ে আমাদের কাছে কোনও খবর নেই।” কিঞ্জল প্যাটেল সরাসরি গুজরাট সরকারকে দায়ী করেছেন। তাঁর দাবি, “২০১৭ সালে এই সরকার আমাদের বলেছিল যে পাতিদারদের উপর থেকে সমস্ত মামলা তুলে নেওয়া হবে।

তারপরও কেন তারা শুধুমাত্র হার্দিককেই টার্গেট করছে। কেন অন্য দু’জন পাতিদার নেতা, যাঁরা বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না সরকার। আসলে এই সরকার চায় না হার্দিক মানুষের সঙ্গে কথা বলুক এবং তাঁদের বিষয় নিয়ে আন্দোলন করুক।” এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন হার্দিকের স্ত্রী কিঞ্জল। অন্যদিকে হার্দিকের দেখা না মিললেও ট্যুইটারে তাঁর উপস্থিতি দেখা গেছে। সম্প্রতি দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর হার্দিক টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালকে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন।

এমনকি তার আগের দিনেও গুজরাট সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে ট্যুইট করে তিনি লিখেছিলেন, “চার বছর আগে আমার নামে মিথ্যে মামলা দায়ের করেছিল গুজরাট পুলিশ। বর্তমানে এই ধরনের মিথ্যে মামলার বিরুদ্ধে আমি হাই কোর্টে যে জামিনের আবেদন করেছিলাম তার শুনানি চলছে। কিছুদিন বাদেই গুজরাটে পঞ্চায়েত নির্বাচন হবে। তাই বিজেপি আমাকে জেলে রাখতে চাইছে। কিন্তু, আমিও বিজেপির বিরুদ্ধে ক্রমাগত লড়াই চালিয়ে যাব। খুব তাড়াতাড়ি আমাদের দেখা হবে, জয় হিন্দ।”

আরও পড়ুনঃ  তৃতীয়বারের জন্য দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর পদে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের শপথ গ্রহণ আজ

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.