সপ্তাহ শেষে বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় উপস্থিত থাকবেন হেভিওয়েটরা

সপ্তাহ শেষে বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় উপস্থিত থাকবেন হেভিওয়েটরা
image source: facebook post [email protected]

নির্বাচনের দিন ঘোষণা না হলেও রাজনৈতিক উত্তাপ ক্রমেই বাড়ছে। প্রচারের মাত্রাবৃদ্ধির লড়াই চলছে তৃণমূল ও বিজেপি-র মধ্যে। এই অবস্থায় আগামী সপ্তাহান্তে পূর্ব বর্ধমান জেলায় বিজেপির ‘পরিবর্তন যাত্রা’র সভায় বিজেপির হেভিওয়েট বেশ কয়েক জন নেতানেত্রী উপস্থিত থাকছেন।

আগামী বিধানসভা নির্বাচনের ভালো ফল করতে পূর্ব বর্ধমান জেলাকে অন্যতম টার্গেট করেছে বিজেপি। পরিবর্তন যাত্রার সভায় বক্তব্য রাখবেন রাজনাথ সিং, স্মৃতি ইরানির মতো কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। থাকবেন সানি দেওল। এছাড়াও বিভিন্ন দিনে উপস্থিত থাকছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারী, অর্জুন সিং, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, মাফুজা খাতুনরা। পরিবর্তন যাত্রার বড় সভার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার সভাপতি মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের এলাকা পূর্বস্থলী দক্ষিণ কেন্দ্রকে।

১৩ ফেব্রুয়ারি পূর্ব বর্ধমান জেলায় বিজেপির পরিবর্তন যাত্রা শুরু হবে। চলবে ১৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এই পরিবর্তন যাত্রা জেলার প্রতিটি বিধানসভা এলাকাকে যুক্ত করার পরিকল্পনা নিয়েছে বিজেপি। ১৩ ফেব্রুয়ারি কেতুগ্রাম থেকে পূর্ব বর্ধমান জেলার পরিবর্তন যাত্রা শুরু হবে। মঙ্গলকোট হয়ে সেদিন কাটোয়ার ঢুকবে পরিবর্তন যাত্রা। পরদিন ১৪ ফেব্রুয়ারি কাটোয়া হয়ে পূর্বস্থলী উত্তর, পূর্বস্থলী দক্ষিণ বিধানসভা এলাকা ঘুরে কালনায় প্রবেশ করবে পরিবর্তন যাত্রা। পরদিন ১৫ ফেব্রুয়ারি পূর্বস্থলী দক্ষিণ, মন্তেশ্বর বিধানসভা এলাকা পরিক্রমা করে মেমারি পৌঁছবে পরিবর্তন যাত্রা। ১৭-১৯ ফেব্রুয়ারির মধ্যে মেমারি, জামালপুর, রায়না, খণ্ডঘোষ, বর্ধমান দক্ষিণ, বর্ধমান উত্তর, ভাতার, আউশগ্রাম, গলসি বিধানসভা এলাকা পরিক্রমা করবে পরিবর্তন যাত্রা।

পূর্বস্থলী দক্ষিণের নশরতপুরে ১৪ ফেব্রুয়ারি রবিবার দুপুরে বড় জনসভা করবে বিজেপি। সেই সভায় বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রাজনাথ সিং, স্মৃতি ইরানি, সানি দেওয়াল এবং দিলীপ ঘোষ। এ ছাড়াও মঙ্গলকোটের কৈচর ও মন্তেশ্বরের মালম্বায় সভা করবে বিজেপি। সেই সভা দুটিতে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারী, অর্জুন সিং, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, মাফুজা খাতুন-সহ রাজ্য ও জেলা নেতারা উপস্থিত থাকবেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। সব মিলিয়ে কালনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার পর এ বার বড় সভা করতে চলেছে বিজেপি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.