নিমতিতা বিস্ফোরণে ক্রমশ জোরালো হচ্ছে JMB যোগ! ফরেনসিক রিপোর্টে তেমনই ইঙ্গিত

নিমতিতা বিস্ফোরণে ক্রমশ জোরালো হচ্ছে JMB যোগ! ফরেনসিক রিপোর্টে তেমনই ইঙ্গিত
নিমতিতা বিস্ফোরণে ক্রমশ জোরালো হচ্ছে JMB যোগ! ফরেনসিক রিপোর্টে তেমনই ইঙ্গিত / ছবি সৌজন্যে- Screengrab-from-Facebook-Video-Posted-By-@mlamnisterjakir.hossain

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ শক্তিশালী বোমার আঘাতে জখম রাজ্যের শ্রম দফতরের প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেনের ইতিমধ্যেই পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে। আপাতত স্থিতিশীলই রয়েছেন মন্ত্রী। তবে, আগামী আরও কিছু সময় তিনি ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকবেন।

এদিকে নিমতিতা স্টেশনে জোরালো বিস্ফোরণে IED ব্যবহারের বিষয়টিতেই মান্যতা দিলেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। সিট বা বিশেষ তদন্তকারী দলকে ইতিমধ্যেই জানানো হয়েছে যে, এই বিস্ফোরণের ঘটনায় প্রশিক্ষিত হাতে তৈরি উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন আইইডি ব্যবহার করা হয়েছে। পাশাপাশি এও জানানো হয়েছে যে, এর সঙ্গে ছিল অ্যান্টি হ্যান্ডিং ডিভাইস। আর তাই এই ঘটনার সঙ্গে জেএমবি জঙ্গি গোষ্ঠীর জড়িত থাকার সম্ভবনাও অস্বীকার করা যাচ্ছে না। তেমনটাই সূত্রের খবর।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বুধবার রাতে কলকাতা যাচ্ছিলেন জাকির হোসেন। রাতে নিমতিতা স্টেশন থেকে তিস্তা তোর্সা এক্সপ্রেস ধরার জন্য ২ নম্বর প্লাটফর্মে যাচ্ছিলেন তিনি। সঙ্গে দলীয় কর্মীরাও ছিলেন। তখনই বিস্ফোরণ ঘটে। বোমার আঘাতে গুরুতর জখম হন মন্ত্রী-সহ আরও অনেকেই।

কীভাবে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখতে দফায় দফায় ঘটনাস্থলে যায় ফরেনসিক দল এবং বম্ব স্কোয়াডের প্রতিনিধিরা। স্টেশন চত্বরে তল্লাশিও চালানো হয়। জানা গিয়েছে যে, স্টেশনে একটি গর্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। এ প্রসঙ্গে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, সাধারণত IED ব্যবহারের ক্ষেত্রেই এই ধরনের গর্ত তৈরি হয়।

এদিকে নিমতিতাকাণ্ডে একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, ঘটনার কিছুক্ষণ আগেই প্ল্যাটফর্মে পরে থাকা একটি ব্যাগ সরাতে যান জাকির হোসেনের এক অনুগামী। ঠিক তখনই বিস্ফোরণ ঘটে। আর তাই ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন আইইডি নয়, হামলাকারীরা অ্যান্টি হ্যান্ডিং ডিভাইসও ব্যবহার করেছিল। সেই জন্যই ব্যাগে হাত দিতেই বিস্ফোরণ হয়।
যেভাবে অত্যাধুনিক পদ্ধতি ব্যবহার করে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে, তাতে তাই জেএমবি বা অন্য কোনও জঙ্গি গোষ্ঠীর জড়িত থাকার সম্ভবনাও থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।