পরিবর্তন যাত্রা নিয়ে কোনও আইনি বাধা রইল না বিজেপির

পরিবর্তন যাত্রা নিয়ে কোনও আইনি বাধা রইল না বিজেপির
image source: facebook post [email protected]

পরিবর্তন যাত্রা রুখতে কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছিল। সেই মামলা এদিন খারিজ করে দিলেন বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল। পরিবর্তন যাত্রা নিয়ে আর কোনও আইনি বাধা রইল না। এই পরিবর্তন যাত্রা নিয়ে তাই স্বস্তিতে বিজেপি।

জনস্বার্থ মামলাটি দায়ের করেছিলেন রমাপ্রসাদ সরকার। মামলা দায়েরের সময় তিনি নিজেকে তৃণমূলের লিগাল সেলের সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার বিচারপতি সাফ জানান, এটা কোনও জনস্বার্থ মামলা হতে পারে না। বরং এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। রাজনৈতিক সমস্যা মেটানোর জন্যই এটা মামলা আকারে পেশ করা হয়েছে। রাজনৈতিক সমস্যা মেটানোর স্থান আদালত নয়। এই সমস্যা মেটানোর জন্য অনেক গণতান্ত্রিক পদ্ধতি রয়েছে। তার মধ্যে নির্বাচন অন্যতম।

রাজ্যে পরিবর্তন যাত্রার ডাক দিয়েছে বিজেপি। এই রথযাত্রা হলে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে, এমন অভিযোগ উঠেছে। এর পরই রমাপ্রসাদ সরকার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। সেই মামলার শুনানি ছিল আজ। কিন্তু এটি জনস্বার্থ মামলা হিসেবে গ্রহণযোগ্যই হয়নি। তাই এদিন তাঁর মামলাটি খারিজ করে দেন বিচারপতি।

বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল ও বিচারপতি অনিরুদ্ধ রায়ের ডিভিশন বেঞ্চে মামলাকারী আইনজীবী রমাপ্রসাদ সরকারের তরফে পরিবর্তন যাত্রা স্থগিতের দাবিতে একটি অন্তর্বর্তী নির্দেশের আবেদন জানানো হয়। তাঁর তরফে দাবি করা হয়, রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। পরিবর্তন যাত্রা হলে আরও সমস্যা বাড়বে।

বিজেপির তরফে শুনানিতে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী মহেশ জেঠমালানি। সওয়ালে তিনি বলেন, গত ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে পরিবর্তন যাত্রা শুরু হয়ে গিয়েছে। আসলে রাজ্যের শাসকদলের সঙ্গে যোগসাজশ করে পরিবর্তন যাত্রায় বাধা দিতে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গতবারও বিজেপির রথযাত্রার আগে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রমাপ্রসাদবাবু। এবারও সেই আইনশৃঙ্খলার যুক্তি দেখিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি। এই মামলার প্রেক্ষিতে আদালত মনে করছে, আইনশৃঙ্খলা ঠিক রাখা রাজ্যের দায়িত্ব। রথযাত্রার হলে আইনশৃঙ্খলা সামলানোর দায়িত্ব রাজ্যেরই।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.