কয়েক দশক ধরে করোনা ভাইরাস শরীরে বয়ে বেড়াচ্ছিল বাদুড়, চাঞ্চল্যকর দাবি গবেষকদের

কয়েক দশক ধরে করোনা ভাইরাস শরীরে বয়ে বেড়াচ্ছিল বাদুড়, চাঞ্চল্যকর দাবি গবেষকদের
কয়েক দশক ধরে করোনা ভাইরাস শরীরে বয়ে বেড়াচ্ছিল বাদুড়, চাঞ্চল্যকর দাবি গবেষকদের

করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি কোথায়? এই নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। বহু বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন এই ভাইরাসটি মনুষ্যসৃষ্ট। তবে সম্প্রতি একদল গবেষক দাবি করেছেন, দীর্ঘদিন ধরেই করোনা ভাইরাস নিজেদের শরীরে বয়ে বেড়াচ্ছে বাদুড়। গবেষকদের এই রিপোর্টে উঠে এসেছে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

করোনা ভাইরাসের উৎস স্থল নিয়ে গবেষণা করছিলেন আমেরিকার পেনসিলভানিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষকরা। মঙ্গলবার “নেচার মাইক্রোবায়োলজি” পত্রিকায় প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে গবেষকরা দাবি করেছেন, মনুষ্য সৃষ্ট নয় এই ভাইরাস ছিল বাদুড়ের দেহে।

হর্সশু নামক এক বিশেষ প্রজাতির বাদুড় বিগত বেশ কয়েক দশক ধরে নিজের শরীরে বহন করে বেড়াচ্ছিল এই মারণ ভাইরাস। আর তাদের শরীরের থেকেই এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে মানুষের দেহে।

সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) চীনে প্রতিনিধি দল পাঠিয়ে এই ভাইরাসের উৎসস্থল খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছে। এর আগে আমেরিকা সরকার দাবি করেছিল চীনের থেকেই ছড়িয়েছে এই মারণ ভাইরাস।

কিন্তু সম্প্রতি “নেচার মাইক্রোবায়োলজি” পত্রিকায় প্রকাশিত এই প্রতিবেদনের পর থেকে এই ভাইরাস বাদুড়ের শরীর থেকেই মানুষের দেহে ছড়িয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার এর জন্য এই ভাইরাসের উৎস স্থল খুঁজে দেখা একটি অত্যন্ত জরুরি বিষয় বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীদের একাংশ।স্বাভাবিকভাবেই এই নতুন তথ্য ভাইরাস ধ্বংস কিভাবে সাহায্য করে তা এখন দেখার বিষয়।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.