মর্মান্তিক! পরকীয়ায় অশান্তির জেরে আত্মঘাতী প্রেমিক, রোষে বিবাহিত প্রেমিকার চুল কাটল স্থানীয়রা

মর্মান্তিক! পরকীয়ায় অশান্তির জেরে আত্মঘাতী প্রেমিক, রোষে বিবাহিত প্রেমিকার চুল কাটল স্থানীয়রা
মর্মান্তিক! পরকীয়ায় অশান্তির জেরে আত্মঘাতী প্রেমিক, রোষে বিবাহিত প্রেমিকার চুল কাটল স্থানীয়রা

গ্রামের এক গৃহবধূর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন প্রতিবেশী এক যুবক। সম্প্রতি সম্পর্কে টানাপোড়েনের জেরে আত্মঘাতী হয় ওই যুবক। এরপরই পাড়া-প্রতিবেশীর রোষ এসে পড়ে প্রেমিকার উপর। ক্ষোভে ওই মহিলাকে গাছে বেঁধে বেধড়ক মারধর করে উত্তেজিত জনতা। শুধু তাই নয়, কেটে নেওয়া হয়েছে তাঁর চুলও। বৃহস্পতিবার মর্মান্তিক এই ঘটনার সাক্ষী রইল উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা। যা নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গিয়েছে, মৃত ওই যুবকটির নাম সুজয় মজুমদার। বয়স ২৬ বছর। প্রতিবেশীদের অভিযোগ, এলাকার ওই বধূর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল যুবকের। যা নিয়ে বেশ অশান্তিও হয়েছে। তা সত্ত্বেও দীর্ঘ ৭ বছর ধরে চলছিল দু’জনের সম্পর্ক। তবে সম্পর্কে টানাপোড়েনের জেরে বৃহস্পতিবার ভোরেই ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হয় ওই যুবক। সকালে বড়াল রেল গেট এলাকায় সুজয়ের দলা পাকানো মৃতদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। তখনই তাঁর পরিবার ও পুলিশে খবর পাঠানো হয়।

এরপরই স্থানীয়দের দাবী, ওই গৃহবধূর কারণেই আত্মঘাতী হয়েছেন সুজয়। এলাকার একাধিক যুবকের সঙ্গে ওই মহিলার সম্পর্ক ছিল। তাই ক্ষুব্ধ জনতার সব রোষ গিয়ে পড়ে গৃহবধূটির উপর। তাই বৃহস্পতিবার সকালেই বাড়ি থেকে বের করে পাড়ার মোড়ের একটি গাছে বেঁধে ফেলা হয় ওই মহিলাকে। এরপর বেধড়ক মারের পাশাপাশি জুতোর মালা পরানো হয় মহিলাকে। এমনকি কেটে নেওয়া হয় মাথার চুলও। ঘটনার খবর পেয়ে গাইঘাটা থানার পুলিশ এসে এরপর ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে।

পুলিশ সূত্রে খবর, যুবকের মৃতদেহটি ইতিমধ্যেই ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা মনে করা হলেও কিন্তু এর পিছনে কী কারণ রয়েছে, বা প্রেমিকার সঙ্গে অশান্তির জেরেই আত্মঘাতী হয়েছেন কি না, তা খতিয়ে দেখবে পুলিশ। মৃতের পরিবার ও পরিজনকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তবে ঘটনাটি ঘিরে এখনও তোলপাড় স্থানীয় এলাকা।