দিল্লিতে দুই তরুণীকে প্রশ্ন ‘রেট কত?’, কান ধরে ক্ষমাও চাইতে হল প্রশ্নকর্তাদের! রইল ভিডিও

দিল্লিতে দুই তরুণীকে প্রশ্ন ‘রেট কত?’, কান ধরে ক্ষমাও চাইতে হল প্রশ্নকর্তাদের! রইল ভিডিও
দিল্লিতে দুই তরুণীকে প্রশ্ন ‘রেট কত?’, কান ধরে ক্ষমাও চাইতে হল প্রশ্নকর্তাদের! রইল ভিডিও

রাতের দিল্লিতে দুই তরুণীকে দেহব্যবসায়ী ভেবে ভুল। তাঁদের কাছে জানতে চাওয়া হল তাঁদের ‘রেট কত?’ এরপরই অবশ্য পালটা চড়াও হলেন দুই তরুণী। প্রশ্নকারী মধ্যবয়সী দলটিকে কান ধরে ক্ষমাও চাওয়ানো হলো। যদিও এই ঘটনায় একেবারেই হতবাক তরুণী দুটি। তাঁদের বক্তব্য, “দিল্লিতে এতবছর থেকে এই প্রথম এমন অভিজ্ঞতা হল।”

ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লির হাউজ খাস ভিলেজের কাছে। সেখানে রাত্রিবেলা একটি পাব থেকে বাড়ি ফেরার জন্য রাস্তায় ট্যাক্সির অপেক্ষায় ছিলেন দুই তরুণী। সে সময়ই কয়েকজন মধ্যবয়স্ক লোক ওই দুই তরুণীকে লক্ষ্য করে অশালীন মন্তব্য করেন। তাঁরা দেহব্যবসার সঙ্গে জড়িত এমন ভেবে ‘রেট’ও জিজ্ঞাসা করে বসেন। এরপরই দুই তরুণী মধ্যবয়সী লোকগুলিকে পাল্টা আক্রমণ করেন। তাঁদের কান ধরে ক্ষমা চাইতেও বাধ্য করা হয়।

শুধু তাই নয়, রাতের ওই ঘটনার পরে পুলিশও হেনস্থা করেছে দুই তরুণীকে। সেই রাতেই তাঁদের পথ আটকান এক টহলরত পুলিশ কর্তা। এক তরুণীর কাছে বারবার জিজ্ঞাসা করেন তিনি কোনও বারে নাচেন কিনা! পরে নেটমাধ্যমে দুটি ঘটনাই শেয়ার করেন ওই তরুণী দুটি। জানা গিয়েছে, দুজনই উত্তর-পূর্ব ভারতের বাসিন্দা। দিল্লিতে একজন রয়েছেন গত পাঁচ বছর ধরে। অন্যজন গত দু’বছর।

যদিও এই ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই সরব হয়ে উঠেছে দিল্লির মহিলা কমিশন। কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল সেই রাতের ভিডিও শেয়ার করে লিখেছেন, ‘ঘটনাটি অত্যন্ত গুরুতর ও লজ্জাজনক। আশা করি, দিল্লি পুলিশ ঘটনাটি খতিয়ে দেখে যথাযথ পদক্ষেপ করবে।’ কমিশনের তরফে দিল্লি পুলিশকে নোটিসও পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নিয়েছে পুলিশ, সে বিষয়ে জানতে চেয়েছে কমিশন।