প্রেমে মনোমালিন্য! তাই কি আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী অদিতি?

প্রেমে মনোমালিন্য! তাই কি আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী অদিতি? / নিজস্ব ছবি
প্রেমে মনোমালিন্য! তাই কি আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী অদিতি? / নিজস্ব ছবি

প্রেমে মনোমালিন্যের জেরে আত্মহত্যা করলেন নদীয়ার কৃষ্ণনগরের এক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। নাম অদিতি দাস। গতকাল সন্ধ্যায় কৃষ্ণনগর শুকুর রোড নিবাসী অরিন দাসের বাড়ি থেকে তার একমাত্র নাবালিকা কন্যার ঝুলন্ত দেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। জানা গিয়েছে, গতকাল বাবা-মা বাড়িতে না থাকার সুবাদেই এই দুর্ঘটনা ঘটিয়ে ফেলে অদিতি। মৃতদেহটি ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সূত্রের খবর, কৃষ্ণনগর গভমেন্ট গার্লস হাইস্কুলের মেধাবী ছাত্রী অদিতি এবছর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতেন। পাশের পাড়ার বাসিন্দা রিতম অধিকারীও একই সঙ্গে পড়াশোনা করতেন। সেই সুবাদে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। তবে বেশ কিছুদিন ধরেই রিতম এবং অদিতির মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল। বন্ধুদের থেকে জানা গিয়েছে, অদিতির সঙ্গে প্রায় এক বছরের সম্পর্ক থাকাকালীন অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠেছিল রিতমের। সেই কারণেই অদিতি এবং রিতমের মধ্যে ঝামেলার সৃষ্টি হয়।

ইতিমধ্যেই কৃষ্ণনগর কোতোয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে মৃত অদিতির পরিবার। তবে এখনও অবধি অভিযুক্ত রিতম গ্রেপ্তার হয়নি। ফলে ক্ষোভে ফুঁসছেন অদিতির পরিবার এবং আত্মীয়স্বজন। যদিও পুলিশ জানিয়েছে গোটা বিষয়টিই খতিয়ে দেখছেন তাঁরা।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.