বাদামের পুষ্টিগুণের পাশাপাশি এই ক্ষতিকারক দিকগুলি সম্পর্কেও জেনে রাখা দরকার

বাদামের পুষ্টিগুণের পাশাপাশি এই ক্ষতিকারক দিকগুলি সম্পর্কেও জেনে রাখা দরকার
বাদামের পুষ্টিগুণের পাশাপাশি এই ক্ষতিকারক দিকগুলি সম্পর্কেও জেনে রাখা দরকার

বাদামের পুষ্টিগুণের পাশাপাশি এটি অনেক ভাবে ক্ষতিকারকও হয়ে উঠতে পারে। তাই যাদের হজমের সমস্যা রয়েছে, তাঁদের খুবই কম পরিমান বাদাম খাওয়া উচিত। শরীরে একদিনে প্রায় ২৫ থেকে ৪০ গ্রাম ফাইবারের প্রয়োজন হয়। আপনি যদি দিনে ৩-৪টি বাদাম খান, তাহলে তা আপনার শরীরে ফাইবারের প্রয়োজনীয়তা অনায়াসেই পূরণ করে।

বেশি খেলে, পেটের সমস্যা যেমন কোষ্টকাঠিন্য ও আমাশার মতো নানান উপসর্গ দেখা দিতে পারে। যদি কেউ ওষুধ খেয়ে থাকেন, সেই সময় বাদাম খাওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। আসলে, বাদামে প্রচুর পরিমাণ ম্যাগনিশিয়াম রয়েছে। ৩-৪টি বাদামে ০.৬ মিলিগ্রাম ম্যাগনেশিয়াম থাকে।

সাধারণত প্রতিদিন মানব শরীরে ১.৮ থেকে ২.৩ মিলিগ্রাম ম্যাগনেশিয়াম প্রয়োজন। তার থেকে বেশি বাদাম খেলে ওষুধের ওপর প্রভাব পড়তে পারে। রক্তে বেশিমাত্রায় ম্যাগনেশিয়াম অ্যান্টি-অ্যাসিড, ল্যাক্সেটিভ, রক্তচাপ ও বহু অ্যান্টি-বায়োটিক ও অ্যান্টি-সাইকোটিক ওষুধের ওপর প্রভাব ফেলতে পারে। ওজন কমাতেও বিশেষভাবে সাহায্য করে বাদাম।

তবে, এতে প্রচুর পরিমাণ ক্যালোরি ও ফ্যাটও উপস্থিত। ৩-৪টি বাদাম থেকে ১৬৮ ক্যালোরি ও ১৪ গ্রাম ফ্যাট শরীরে প্রবেশ করে। যদি আপনি প্রতিদিন একমুঠো বাদাম খান, তাহলে প্রায় ৫০০ এর বেশি ক্যালোরি ও ৪০-৫০ গ্রাম ফ্যাট সেবন করছেন আপনি। ফলে, যদি আপনি শরীরের ওজন কমাতে চান, তাহলে অল্প বাদাম খেতে হবে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.