মর্মান্তিক! করোনা আতঙ্কে শিশু কন্যাকে ১৫ বার কুপিয়ে খুন! মা’য়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

মর্মান্তিক! করোনা আতঙ্কে শিশু কন্যাকে ১৫ বার কুপিয়ে খুন! মা'য়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের / প্রতীকী ছবি
মর্মান্তিক! করোনা আতঙ্কে শিশু কন্যাকে ১৫ বার কুপিয়ে খুন! মা'য়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের / প্রতীকী ছবি

করোনা আবহে বর্তমানে প্রায় প্রত্যেকটি মানুষই মানসিক অবসাদে ভুগছেন। ভবিষ্যতের চিন্তা গ্রাস করে ধরছে সকলে। কিন্তু করোনার আতঙ্কে এক মা যা করলেন, তা শুনলে রীতিমতো শিউড়ে উঠেতে হয়৷ করোনার ভয়ে নিজের মেয়ের ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তিত ছিলেন মা৷ তাই নিজের ৫ বছরের শিশু কন্যাকে কুপিয়ে কুপিয়ে খুন করলেন ওই মহিলা। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ব্রিটেনে। ইতিমধ্যেই মহিলাকে দোষী সাব্যস্ত করে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, ব্রিটেনের বাসিন্দা ওই মহিলার নাম সুথা সিভান্থাম। তিনি ভারতীয় বংশোদ্ভূত। শিশু কন্যাকে খুনের পর তাঁকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত্যু নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত শিশুটিকে কুপিয়ে কুপিয়ে খুন করেন ওই মহিলা। প্রায় ১৫ বার কোপানো হয়। শিশুটির ঘাড়, বুক ও তলপেটে আঘাত রয়েছে। এমনকি ছুরি দিয়ে নিজের পেটেও আঘাত করেন অভিযুক্ত মহিলা। পরে গুরুতর জখম অবস্থায় এক প্রতিবেশীর নজরে আসেন তিনি। প্রতিবেশীটিই তাঁকে উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেন।

এরপর মহিলাটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ সুস্থ হওয়ার পর তাঁকে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়৷ পুলিশি জেরায় তিনি জানিয়েছেন, লকডাউনে গৃহবন্দী থাকতে থাকতে মানসিক অবসাদ গ্রাস করে তাঁকে। এদিকে করোনার প্রকোপ বেড়ে চলায় মেয়ের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভয়াবহ চিন্তিত ছিলেন তিনি। তাঁর কিছু হলে, মেয়েকে কে দেখবে এই চিন্তায় রীতিমতো অস্থির হয়ে উঠেছিলেন। তাই অবশেষে চরম সিদ্ধান্ত নেন তিনি। নিজের হাতেই মেয়েকে শেষ করে দেন।

ইতিমধ্যেই মহিলাটিকে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে৷ তাঁর বিরুদ্ধে মেন্টাল হেলথ অ্যাক্টের ৩৭ ও ৪১ ধারায় মামলাও দায়ের করা হয়েছে৷ মহিলাটির মানসিক চিকিৎসার জন্য আপাতত তাঁকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে৷ তিনি সুস্থ হলেই পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।