হিমবাহের স্রোতে বন্ধ হয়ে গেল সুড়ঙ্গের মুখ, অবিশ্বাস্যভাবে উদ্ধার করলেন ITBP-র জওয়ানরা, দেখুন ভিডিও

হিমবাহের স্রোতে বন্ধ হয়ে গেল সুড়ঙ্গের মুখ, অবিশ্বাস্যভাবে উদ্ধার করলেন ITBP-র জওয়ানরা, দেখুন ভিডিও
হিমবাহের স্রোতে বন্ধ হয়ে গেল সুড়ঙ্গের মুখ, অবিশ্বাস্যভাবে উদ্ধার করলেন ITBP-র জওয়ানরা, দেখুন ভিডিও / ইমেজ সোর্স- Screenshot From Video Tweeted By @chamolipolice

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ রবিবার সকালে আচমকা তুষার ধসে বিপর্যস্ত অবস্থা উত্তরাখণ্ডের। জোশীমঠের কাছে ধৌলিগঙ্গার জলস্তর দ্রুত বেড়ে গিয়েছে। তীব্র জলোচ্ছ্বাসের ধাক্কায় ঋষিগঙ্গা বিদ্যুৎ প্রকল্প তছনছ হয়ে গিয়েছে। জলের তোড়ে ভেসে গিয়েছে নদীর পাড়ের বহু ঘরবাড়ি। এই ভয়াবহ তুষারধসের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ১০০ থেকে ১৫০ জন মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এই পরিস্থিতিতে উদ্ধারকাজে নেমেছে দেশের সেনা-জওয়ানরা। এরকম বিপদের মধ্যে বারবার রক্ষাকর্তার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন তাঁরা। স্বাভাবিকভাবেই এবারেও তাঁরাই রক্ষাকর্তার ভূমিকায় নেমেছেন, দুর্গতদের উদ্ধারে হাত লাগিয়েছেন। রবিবার সকাল পৌনে এগারোটা নাগাদ উত্তরাখণ্ডে চামোলি জেলায় অসম্ভব বৃষ্টিতে ধৌলিগঙ্গা নদীতে ভয়ঙ্কর বন্যা হয়েছে৷

এই মুহূর্তে একটি ভিডিও ঘুরেফিরে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আচমকা নামা ধসের ফলে চামোলির তপোবন বাঁধের কাছে নির্মীয়মাণ টানেলে আটকে পড়েন অন্তত ১৬ জন মানুষ।

উত্তরাখণ্ডে উদ্ধার কাজে ফের নিজেদের ছাপ রাখল ইন্দো-তিব্বত সীমান্ত পুলিশ (Indo Tibetan Border Police, ITBP)৷ আইটিবিপি-র ডিজি এসএস দেশওয়াল আগেই জানিয়েছিলেন যে, তাঁদের দল টানেলে আটকে পড়া ব্যক্তিদের উদ্ধার করার চেষ্টা করছে। এবারও সেই ইন্দো-তিব্বত সীমান্ত পুলিশ (Indo Tibetan Border Police, ITBP)-এর অক্লান্ত পরিশ্রমে উদ্ধার হলেন ওই সংকীর্ণ টানেলে আটকে পড়া ব্যক্তিরা। তাঁদের মধ্যেই এক ব্যক্তিকে উদ্ধারের ভিডিওই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ পেয়েছে। উল্লেখ্য, জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই টানেলে আটকে পড়া প্রত্যেকেই নিরাপদে উদ্ধার করেছেন আইটিবিপি’র জওয়ানরা৷ এমনকী স্ট্রেচারে তুলে কাঁধে চাপিয়েও মানুষকে বিপদ থেকে রক্ষা করেছে আইটিবিপি-র জওয়ানরা৷

ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, উত্তরাখণ্ডের একজনকে ইন্দো-তিব্বত সীমান্ত পুলিশ বা আইটিবিপি-র জওয়ানরা একটি সরু সুড়ঙ্গ থেকে টেনে বার করছেন। তুষারধসের পর, তিনিও অন্যান্য ১৬ জনের মতো ওই টানেলে আটকে গিয়েছিলেন।

ওই ভিডিও ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, আইটিবিপি সদস্যরা ধীরে ধীরে টানেল থেকে একজনকে টেনে বের করছেন। মাত্র কয়েক মিটার প্রশস্ত পথে একটি দড়ির সাহায্যে ওই ব্যক্তিকে কাঁচা সুরঙ্গ থেকে বের করে আনা হচ্ছে। ওই ব্যক্তি বেরিয়ে আসতেই উল্লসিত হয়ে ওঠেন সকলে।

জানা গিয়েছে, সেনাবাহিনী, জাতীয় দুর্যোগ প্রতিক্রিয়া বাহিনী (এনডিআরএফ) এবং আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যরা উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করছেন। এয়ারলিফ্টের ব্যবস্থার জন্য সেনার তিনটি হেলিকপ্টার কাজ করছে সেখানে৷ দুটি এমআই ১৭এস (Mi-17s) ও একটি ধ্রুব (ALH Dhruv) ওঠা-নামা করছে৷ প্রয়োজনে আরও হেলিকপ্টার কাজে লাগাবে ভারতীয় সেনা, তেমনটাই জানান হয়েছে৷ বন্যা বিধ্বস্ত এলাকায় দেশের ৬০০ সেনা উদ্ধারকার্যে রয়েছেন৷

উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত (Trivendra Singh Rawat) জানিয়েছেন যে, ঘটনাস্থলে রয়েছে মেডিকেলের টিমও। ডাক্তাররা সেখানে পৌঁছে গিয়ে শিবির বানিয়ে ফেলেছেন৷ ৬০ জন এসডিআরএফ উদ্ধারকার্যের প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিয়ে সেখানে হাজির হয়েছেন।

আরো পড়ুনঃ   অবাক কান্ড! ৮০ কোটি ইলেকট্রিকের বিল দেখে হাসপাতালে বৃদ্ধ