বৈশাখীকে কলেজের পরিচালন সমিতির সম্পাদক পদে বসালেন পার্থ, জোর জল্পনা রাজনৈতিক মহলে

Image source: Google

বিশেষ প্রতিবেদনঃ গেরুয়া শিবিরে যোগদানের পরও শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বান্ধবী বৈশাখী বন্দপাধ্যায়ের বহু আচরনে তৃনমূলের সাথে তাঁদের দূরত্ব কমার আভাস মিলেছিল। কিন্তু এবার সেই বিষয়টি আরও কিছুটা স্পষ্ট হল রাজ্যের শিক্ষা দপ্তরের একটি সিদ্ধান্তের ওপর ভিত্তি করে। বৈশাখী যে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ, সেই কলেজেই এবার পরিচালন সমিতির সম্পদাক হিসাবে নির্বাচন করা হল তাঁকে।

কলকাতার মিল্লি আল আমিন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বৈশাখী বন্দোপাধ্যায়। চলতি বছরই সেই পদ থেকে ইস্তফা দিতে চান তিনি। তাঁর অভিযোগ ছিল তারই কলেজের এক শিক্ষিকা তাকে উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে অপমান ও হেনস্থা করছেন। আর ঠিক এবিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টপাধ্যের দিকেও আঙুল তোলেন বৈশাখী দেবী। তিনি দাবি করেন, সমস্ত কিছু জেনেও কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেননা পার্থবাবু। যদিও তাঁর এই অভিযোগ অনর্থক বলে উড়িয়ে দেন শিক্ষামন্ত্রী। তবে শেষ পর্যন্ত কোন উপায় না পেয়ে পার্থ বাবুর বাড়িতে গিয়ে বৈশাখীদেবী তাঁর ইস্তফা পত্র জমা দেন। এই সময় তাঁকে পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

সুত্রের খবর, নানা আইনি জটিলতার কারনে মিল্লি আল আমিন কলেজে দীর্ঘ দিন ধরেই পরিচালন সমিতি ছিলনা। সেই সমস্ত জটিলতা কাটিয়ে আবার সেই সমিতি গঠন করেন শিক্ষামন্ত্রীর দপ্তর। আর সেই পরিচালন সমিতির সম্পাদক পদেই বৈশাখীকে স্থান দিলেন পার্থবাবু। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের এই সিদ্ধান্তে রাজনৈতিক মহলে আরও একবার শুরু হল জোর জল্পনা। তাহলে কী এবার সত্যি সত্যি তৃণমূলে ফিরতে চলেছে শোভন-বৈশাখী? সেটা সময়ই বলবে।

আরও পড়ুনঃ  আজকের সবজি থেকে মাছ-মাংস-ডিমের বাজার দর, দেখে নিন এক নজরে

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.