করোনায় আক্রান্ত পাত্র! পাত্রী পিপিই কিট পরে বিয়ে সারলেন হাসপাতালেই

করোনায় আক্রান্ত পাত্র! পাত্রী পিপিই কিট পরে বিয়ে সারলেন হাসপাতালেই
করোনায় আক্রান্ত পাত্র! পাত্রী পিপিই কিট পরে বিয়ে সারলেন হাসপাতালেই

করোনা আতঙ্কে কার্যত জেরবার গোটা দেশ। দিনের পর দিন চড়ছে করোনার গ্রাফ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হারও। এরই মধ্যে সারা দেশে ঘাটতি দেখা দিচ্ছে হাসপাতালের বেড বা ভ্যাকসিনের। অক্সিজেন বা ভেন্টিলেটরও অমিল। এদিকে করোনা আক্রান্তের সংখ্যার কমতি নেই। ইতিমধ্যেই দেশে দৈনন্দিন আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে তিন লক্ষের গণ্ডি। মৃতের সংখ্যাও উর্ধ্বমুখী। এত খারাপ খবরের মাঝেও সম্প্রতি প্রকাশ্যে এল এমনই এক খবর, যা নিমেষেই মন ভালো করে দেওয়ার মতোই বটে! করোনা আক্রান্ত পাত্রকে হাসপাতালেই পিপিই কিট পরে বিয়ে সারলেন পাত্রী!

ঘটনাটি ঘটেছে, কেরলের আলাপ্পুঝার মেডিক্যাল কলেজে। সংবাদসংস্থা এএনআই সূত্রে জানা গিয়েছে, পাত্রের নাম শরথ মন (২৮)। তিনি আলাপ্পুঝার কাইনাকারির বাসিন্দা। পাত্রী আভিরামি (২০), থেক্কানারইয়াদের বাসিন্দা। কথা ছিল, গত ২৫ এপ্রিল, রবিবার দুজনের চার হাত এক হবে। কিন্তু তার আগেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়েন শরথ এবং তাঁর মা। আলাপ্পুঝার মেডিক্যাল কলেজের কোভিড ওয়ার্ডে ভর্তি হন তাঁরা। এদিকে দুজনের বিয়ে নিয়ে চিন্তায় পড়ে যান বাড়ির লোক। বিয়ে পিছানোর কোনও উপায় নেই। এদিকে পাত্র যেহেতু হাসপাতালে ভর্তি, কীভাবে সম্পন্ন হবে বিয়ে?

অবশেষে উপায় বেরোলো। জেলাশাসক এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে বিয়ের জন্য অনুমতি চেয়ে হাসপাতালেই বয়ে করার আবেদন জানানো হল। রাজিও হলেন তাঁরা। শেষমেশ হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডেই শরথকে বিয়ে করলেন আভিরামি। যদিও তাঁর পরণে ছিল না বেনারসি শাড়ি বা কোনও গয়না। পিপিই কিট পরেই বিয়ে সারেন দু’জনে। বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের কয়েকজন চিকিৎসক, নার্স এবং পরিবারের অল্প কয়েক সদস্য। শরথ-অভিরামির বিয়ের একাধিক ছবি ইতিমধ্যে বেশ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। নবদম্পতিকে আশীর্বাদ এবং শুভকামনাও জানিয়েছেন নেটিজেনরা।