রবিবার, ০২ অক্টোবর, ২০২২

সফল উৎক্ষেপণ ISRO-র ক্ষুদ্রতম রেকেটের, মহাকাশে গেল পড়ুয়াদের তৈরি স্যাটেলাইটও

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: আগস্ট ৭, ২০২২, ০৩:২২ পিএম | আপডেট: আগস্ট ৭, ২০২২, ০৩:৫২ পিএম

সফল উৎক্ষেপণ ISRO-র ক্ষুদ্রতম রেকেটের, মহাকাশে গেল পড়ুয়াদের তৈরি স্যাটেলাইটও
সফল উৎক্ষেপণ ISRO-র ক্ষুদ্রতম রেকেটের, মহাকাশে গেল পড়ুয়াদের তৈরি স্যাটেলাইটও

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আজ, রবিবার নয়া ইতিহাস সৃষ্টি করল ভারতীয় স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন বা ISRO। আজই ইসরো সফলভাবে উৎক্ষেপণ করল ক্ষুদ্রতম রকেটের। অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে আজ সকালে এই রকেট উৎক্ষেপণ হয়। যদিও এই ক্ষুদ্রতম রকেটের উৎক্ষেপণের কিছুক্ষণের মধ্যেই ধাক্কা খেল ইসরো। জানা গিয়েছে, এই রকেটের উৎক্ষেপণের মুহূর্তের বেশ কিছু তথ্য হারিয়ে গিয়েছে। তবে, ইসরোর বিজ্ঞানীরা সেইসব তথ্য ফের ফিরে পাওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন বলেই খবর। 

উল্লেখ্য, মাঝরাত থেকেই শুরু হয়েছিল রকেট উৎক্ষেপণের প্রস্তুতি। রাত ২ টো থেকে শুরু হয়েছিল কাউন্টডাউন, পর পর ৭ টি ধাপে উৎক্ষেপণ হয় এই রকেটের। ইসরোর ক্ষুদ্রতম এই রকেটে রয়েছে একটি স্টুডেন্ট স্যাটেলাইট ও একটি আর্থ অবজারভেশন স্যাটেলাইট রয়েছে। এর মধ্যে স্টুডেন্ট স্যাটেলাইটটি স্কুল পড়ুয়ারা নির্মাণ করেছে।

জানা গিয়েছে, ‘স্পেস কিডজ় ইন্ডিয়া’ নামক একটি মহাকাশ গবেষণা সংস্থার অধীনে ৭৫০ স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী একসঙ্গে মিলে এই স্যাটেলাইটটি নির্মাণ করেছে। আজাদিস্য়াট নামক এই উপগ্রহটি স্বাধীনতার ৭৫ বর্ষপূর্তির উদ্দেশ্যেই বানানো হয়েছে। যে সব পড়ুয়ারা এই স্যাটেলাইটটি নির্মাণ করেছিল, আজ সেইসব ছাত্রীরাও উপস্থিত ছিল উৎক্ষেপণের সময়। 

এদিকে, রকেট উৎক্ষেপণ প্রসঙ্গে ইসরোর চেয়ারম্যান এস সোমনাথ বলেন, ‘এসএসএলভি-ডি১ আশানুরূপভাবেই প্রতিটি ধাপে সঠিকভাবে কাজ করেছে। উৎক্ষেপণের আগের মুহূর্তের কিছু তথ্য হারিয়ে গেছে। আমরা যাবতীয় তথ্য বিশ্লেষণ করছি, মিশনের অন্তিম ফল কী হয়, তা নির্ণয় করতে।’

অন্যদিকে, ইসরোর এই মিশনে স্কুল পড়ুয়াদের অংশগ্রহণ নিয়ে স্পেস কিডজ় ইন্ডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা তথা সিইও ডঃ শ্রীমতি কেশন বলেন, ‘৭৫০ জন ছাত্রী ৭৫টি পে-লোড তৈরি করেছে, যা স্যাটেলাইটে বসানো হয়েছে। আমরা চাই স্বাধীনতার ৭৫ তম বর্ষকে বিশেষ করে তুলতে। দেশের কন্যাসন্তানদের তুলে ধরার উপরে বিশেষ জোর দিয়েছি আমরা।’