কাবুল বিমানবন্দরের কাছে এদিনের রকেট হামলার দায় স্বীকার IS-এর

কাবুল বিমানবন্দরের কাছে এদিনের রকেট হামলার দায় স্বীকার IS-এর
কাবুল বিমানবন্দরের কাছে এদিনের রকেট হামলার দায় স্বীকার IS-এর

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ সোমবার সকাল থেকেই একের পর এক রকেট হানা। এদিন সকাল থেকেই এমন পরিস্থিতিতে আতঙ্কিত কাবুলবাসী। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কাবুল বিমানবন্দর লক্ষ্য করেই রকেটগুলি ছোড়া হয়। কিন্তু বিমানবন্দরে যে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম বসানো রয়েছে, তা ভেদ করে প্রবেশ করতে পারেনি রকেটগুলি। কাবুল বিমানবন্দরের দিকের ল্যাব জার খাইরখানা চৌরাস্তার কাছে খোরশিদ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে একটি গাড়ি থেকে ২টি রকেট ছোড়া হয়।

এবার এই রকেট হামলার দায় স্বীকার করল IS। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, জঙ্গি গোষ্ঠীর তরফে জানানো হয়েছে, তাঁদের বাহিনী ছ’টি Katyusha rocket দিয়ে কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হামলা চালায়। সোমবার সকালেই মার্কিন সেনার তরফ থেকে জানানো হয়েছিল যে, পাঁচটি রকেট রকেট দিয়ে হামলা চালানো হয় বিমানবন্দরে। সংবাদসংস্থা সূত্রে এদিন দাবি করা হয়, কাবুল বিমানবন্দরের কাছে একাধিক রকেটের আওয়াজ শুনতে পাওয়া গিয়েছে। যদিও কারা এই হামলা চালিয়েছিল তা তখন পরিষ্কার ছিল না।

প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী, কাবুলের আকাশে বেশ কয়েকটি রকেটের আওয়াজ শোনা গিয়েছিল। তবে, তা কোথা থেকে ছোঁড়া হচ্ছে সেই রকেট তা প্রথমে স্পষ্ট ছিল না। আফগানিস্তানের এক সাংবাদিকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ‘হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দিকে সকাল ৬.৪০ মিনিটে কাবুলের লাব-ই জার থেকে অন্তত দুটি রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে।’ পড়ে অবশ্য আইএস জানায় যে, তারাই এই হামলা চালিয়েছে।

আফগানিস্তানে তালিবানি তাণ্ডবের মাঝে বৃহস্পতিবার রাতে আচমকাই জোড়া বিস্ফোরণ ঘটেছিল কাবুল বিমানবন্দরে। সেই হামলায় ১৩ জন মার্কিন সেনার মৃত্যু ঘটে। এরপরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন, হামলাকারীদের কাউকে রেয়াত করা হবে না। কথা রাখেনও মার্কিন প্রেসিডেন্ট। আইএস ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা চালায় আমেরিকা। এর বদলা নিতেই সোমবার ফের কাবুল বিমানবন্দরে রকেট হামলা করে আইএস। তবে তা প্রতিহত করা সম্ভব হয়েছে। তবে, আরও হামলা হতে পারে, এমন আশঙ্কা করেছিলেন আগেই জো বাইডেন। এদিন ফের বিমানবন্দর লাগোয়া এলাকা কেঁপে উঠল বিস্ফোরণে।

উল্লেখ্য, রবিবারও বিকেল নাগাদ কাবুল বিমানবন্দর লক্ষ্য করে রকেট হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। আফগানিস্তানের স্থানীয় সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা যায়, কাবুলের খাওজা বুঘরা জেলার গুলাই অঞ্চলে ওই বিস্ফোরণ হয়। জন বসতিপূর্ণ এলাকায় একটি বাড়িতে রকেট হামলা চালানোয় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সংবাদমাধ্যম সূত্রে এক শিশু সহ দুইজনের মৃত্যুর খবর মিললেও, প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি অনুযায়ী, যে বাড়িতে রকেটটি আছড়ে পড়েছিল, সেই পরিবারের নয়জন সদস্যের মৃত্যু হয়েছে।