মাধ্যমিক পাশে ভারতীয় রেলে চাকরির সুযোগ! কীভাবে আবেদন করবেন? জেনে নিন বিস্তারিত তথ্য

মাধ্যমিক পাশে ভারতীয় রেলে চাকরির সুযোগ! কীভাবে আবেদন করবেন? জেনে নিন বিস্তারিত তথ্য / প্রতীকী ছবি
মাধ্যমিক পাশে ভারতীয় রেলে চাকরির সুযোগ! কীভাবে আবেদন করবেন? জেনে নিন বিস্তারিত তথ্য / প্রতীকী ছবি

আপনি কি সরকারি চাকরি খুঁজছেন? তাহলে আপনার জন্য রয়েছে মস্ত এক সুখবর। এবার মাধ্যমিক পাশেই মিলতে পারে ভারতীয় রেলে চাকরির সুযোগ। সম্প্রতি উত্তর-মধ্য রেলওয়ে ডিভিশন বিভিন্ন ট্রেডে অ্যাপ্রেন্টিস পদে নিয়ােগের বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে ভারতীয় রেল। প্রায় ২ লক্ষ ৮০ হাজার শূন্যপদে হবে কর্মী নিয়ােগ।
আবেদনের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা কী? কোথায় কত শূন্যপদ রয়েছে? ফি-ই বা কত? আসুন জেনে নিই বিস্তারিত তথ্য…

শূন্যপদের সংখ্যা:
সবচেয়ে বেশি শূন্যপদ রয়েছে উত্তর রেলওয়েতে। সেখানে মােট শূন্যপদের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৪৪৮টি। মধ্য রেলে মোট শূন্যপদ ২৬ হাজার ৯৫৭টি। দক্ষিণ পূর্ব রেলে শূন্যপদ ১৫ হাজার ৪৬৯টি। কলকাতা মেট্রোতে শূন্যপদ রয়েছে মোট ৭৬৯টি।

আসন সংখ্যা:
ফিটার: ২৮৬ টি, ওয়েল্ডার: ১১ টি, মেকানিক: ৮৪ টি, কারপেন্টার: ১টি ও ইলেক্ট্রিশিয়ান: ৮৮ টি

বয়সসীমা:
চাকরিপ্রার্থীদের ন্যূনতম বয়স ১৫ বছর থেকে ২৪ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে সংরক্ষিত ক্যাটেগরির প্রার্থীরা বয়সের ঊর্ধ্বসীমায় ছাড় পাবেন।

শিক্ষাগত যােগ্যতা:
আবেদনকারীকে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর সহ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। এছাড়াও, এনসিভিচি-র সঙ্গে যুক্ত কোনও ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট থেকে আইটিআই পাশ সার্টিফিকেট থাকতে হবে।

অ্যাপ্লিকেশন ফি:
সাধারণদের ক্ষেত্রে অ্যাপ্লিকেশন ফি ১৭০ টাকা। তবে এসটি এবং এসসি মহিলাদের এবং শারীরিকভাবে সক্ষম প্রার্থীদের কোনও ফি জমা দিতে হবে না।

আবেদন পদ্ধতি:
আবেদন নেওয়া শুরু হয়েছে ১৭ই মার্চ থেকে। তা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ আগামী ১৬ই এপ্রিল, ২০২১। ওই তারিখের মধ্যে প্রার্থীদের অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। আবেদনপত্র জমা দেওয়ার পরে পরবর্তী প্রয়ােজনের জন্য তার প্রিন্ট আউট বার করা রাখা অবশ্যই জরুরি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.