মন পরিবর্তন! ‘বন্ধু’ দেশ ভারত সাহায্য করেছিল, তাই টিকার কাঁচামাল পাঠানোর সিদ্ধান্ত বাইডেনের

মন পরিবর্তন! ‘বন্ধু’ দেশ ভারত সাহায্য করেছিল, তাই টিকার কাঁচামাল পাঠানোর সিদ্ধান্ত বাইডেনের
মন পরিবর্তন! ‘বন্ধু’ দেশ ভারত সাহায্য করেছিল, তাই টিকার কাঁচামাল পাঠানোর সিদ্ধান্ত বাইডেনের

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ অবশেষে মন গলল আমেরিকার প্রেসিডেন্টের। আগে তীব্র সমালোচনা করলেও, অবশেষে সিদ্ধান্ত বদলালেন জো বাইডেন। ভারতে টিকা তৈরির কাঁচামাল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমেরিকা। আর তার পরেই আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছেন, বিপদের সময় ভারত তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। তাই ভারতের এই খারাপ সময়ে আমেরিকাও তাঁদের পাশে দাঁড়াবে।

উল্লেখ্য, কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তেই ভেঙে পড়ার মুখে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। অক্সিজেন, টিকা, ওষুধ— করোনা সংক্রমণ রোখার জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের সংকট দেখা দেওয়ার পরে, আমেরিকার কাছে সাহায্য চেয়েছিল ভারত। কিন্তু বাইডেন প্রশাসনের তরফে টিকা তৈরির কাঁচামাল রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এরপরেই দেশের জনসাধারণ ক্ষোভের মুখে পড়েন বাইডেন। ঠিক দেড় বছর আগের প্রসঙ্গ তোলা হয়। বলা হয়, গত বছর যখন আমেরিকা হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন চেয়েছিল ভারতের কাছে, তখন ৫ কোটি ট্যাবলেট পাঠানো হয়েছিল সে দেশে। কিন্তু যখন তাদের সময় এল, সাহায্য করবে না বলে জানিয়ে দিল আমেরিকা।

এরপরেই সিদ্ধান্তের পরিবর্তন। ভারতকে সাহায্য করা হবে বলে, বিবৃতি প্রকাশ করে জানানো হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে টুইট করে বলা হয়েছে যে, ‘প্রথমে অতিমারির প্রভাবে আমাদের হাসপাতালগুলি যখন সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল, তখন যেভাবে ভারত সাহায্য করেছিল, তেমনই এই সময় আমরা ভারতকে সাহায্য করতে বদ্ধপরিকর।’

রবিবারই ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল এবং আমেরিকার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সুলিভানের মধ্যে ফোনে কথোপকথন হয়। জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র এমিলি হর্ন নিজেই সে কথা জানান। তিনি বলেন, ‘ভারতের কোভিড রোগীদের চিকিৎসার জন্য এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের রক্ষা করার জন্য আমেরিকা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে। পিপিই কিট, র‌্যাপিড টেস্ট কিট, ওষুধের সরঞ্জাম, ভেন্টিলেটর পাঠানো হবে খুব তাড়াতাড়ি।’ তিনি আরও জানিয়েছেন যে, আমেরিকার রোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থার (সিডিসি) জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের একটি দলকেও দিল্লি পাঠানো হবে। তাঁরা আমেরিকার দূতাবাস ও ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সঙ্গে হাত মিলিয়ে, করোনা অতিমারির মোকাবিলায় কাজ করবেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, করোনার প্রথম ঢেউ যখন আছড়ে পড়েছিল, সেই সময় আমেরিকার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতের কাছে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন পাঠানোর আবেদন করেন। আর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দ্রুত সেই আবেদনে সাড়া দিয়ে, ওষুধ দিয়ে আমেরিকাকে সাহায্যও করেন।

আমেরিকার বর্তমান প্রেসিডেন্ট এবার সেই সাহায্যের কথা স্মরণ করে, ভারতকে টিকা তৈরির কাঁচামাল দিয়ে সাহায্য করার কথা জানালেন।