“লজ্জাজনক! এটি এখন জেহাদি দেশ”, কৃষিআইন প্রত্যাহারে বিস্ফোরক কঙ্গনা

“লজ্জাজনক! এটি এখন জেহাদি দেশ”, কৃষিআইন প্রত্যাহারে বিস্ফোরক কঙ্গনা
“লজ্জাজনক! এটি এখন জেহাদি দেশ”, কৃষিআইন প্রত্যাহারে বিস্ফোরক কঙ্গনা

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ অবশেষে দীর্ঘদিনের আন্দোলনে জয়ের মুখ দেখলেন দেশের কৃষক। গত বছর মোদি সরকার নিয়ে আসে কৃষি আইন। আর সেই আইন মানতে নারাজ ছিল দেশের কৃষকরা। গত বছর থেকেই সেই আন্দোলন এর নানান রূপ আমরা দেখেছি। তবে অবশেষে তাঁদের জয়। আজ গুরু নানকের জন্মদিনে বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর। তিন কৃষি আইন প্রত্যাহার করল কেন্দ্র। আজ সকাল সকাল প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধ, ‘এবার আপনারা বাড়ি ফিরে যান।‘ পাশাপাশি তিনি জানান এই আইন প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত কৃষক আন্দোলনের সময় বহু সেলেব কৃষকদের সঙ্গে এই লড়াইয়ে সামিল হন। ঠিক একইভাবে আজ প্রত্যাহারের সংবাদ পেয়েই সেলেব মহল থেকে একাধিক মন্ত্যব্য উঠে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এই বিষয় নিয়ে মুখ খুললেন বলিউড কুইন কঙ্গনা রানাওয়াত। তাঁর বলার সুরে দেখা গেল আক্ষেপ। তিনি মোটেও খুশি নন মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্তে। সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখলেন “ এটি দুঃখজনক, লজ্জাজনক এবং অন্যায়। রাস্তায় বসে থাকা মানুষরা যদি আইন ঠিক করে তাহলে নির্বাচিত দল কি করবে। মেনে নিতেই হবে এটি একটি জেহাদি দেশ। তাঁদের অনেক অনেক শুভেচ্ছা যারা এটি চাইছিলেন।“ এই বিষয়ে মত প্রকাশ করেন সোনু সুদ। তিনি ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রীকে।

প্রসঙ্গত, বলিউডের অন্যতম বিতর্কিত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। এমন একটাও দিন থাকেনা যেখানে কঙ্গনার নাম সংবাদ মাধ্যমে উঠে আসেনা। সমস্ত বিষয়ে কঙ্গনা নির্ভয়ে নিজের মতামত প্রকাশ করতে পিছুপা হননা। বলিউডের অন্ধকার দিক, রাজনৈতিক দিক প্রায় সমস্ত দিকেই নিজের মন্তব্য প্রকাশ করেছেন ঠোঁটকাটা বলিউড কুইন। এই যুদ্ধের শুরু হয়েছিল বলিউডের অন্যতম সেরা অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর। কঙ্গনার একটি ভিডিও নাড়িয়ে দিয়েছিল গোটা বলিউডকে। তারপর কৃষক আন্দোলনের একাধিক টুইট করে বিতর্কে জড়িয়েছেন বহুবার।