কলকাতা পুরভোটে ১৪৪ টি ওয়ার্ডেই প্রার্থী ঘোষণা বিজেপির! তরুণ এবং মহিলা প্রার্থীতেই জোর

কলকাতা পুরভোটে ১৪৪ টি ওয়ার্ডেই প্রার্থী ঘোষণা বিজেপির! তরুণ এবং মহিলা প্রার্থীতেই জোর
কলকাতা পুরভোটে ১৪৪ টি ওয়ার্ডেই প্রার্থী ঘোষণা বিজেপির! তরুণ এবং মহিলা প্রার্থীতেই জোর / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আজ কলকাতা পুরভোটের পূর্ণাঙ্গ প্রার্থীতালিকা প্রকাশ করল বিজেপি। আগামী ১৯ ডিসেম্বর রয়েছে কলকাতায় পুরভোট। এই নির্বাচনের জন্য ইতিমধ্যেই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে সিপি আই এম, তৃণমূল কংগ্রেস এবং কংগ্রেস। বাকি ছিল শুধু রাজ্যে প্রধান বিরোধী দল। সোমবার অর্থাৎ এজ বিজেপিও  কলকাতা ১৪৪ টি ওয়ার্ডের সবকটি আসনেই তাঁদের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে।

কলকাতা পুরভোটে বিজেপির প্রার্থী তালিকায় তরুণের মুখী বেশি। ৪৮ জনের বেশি তরুণ মুখ রয়েছে প্রার্থী তালিকায়। ৫০ জনের বেশি মহিলা প্রার্থী রাখা হয়েছে তালিকায়। তালিকায় রয়েছেন ৯ জন সংখ্যালঘু প্রার্থীও। এছাড়াও, ৩ জন চিকিৎসক ও ৫ জন আইনজীবীকে প্রার্থী করা হয়েছে। মহিলাদের মূলত প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বিজেপি। তালিকায় আছেন ৪ জন শিক্ষক-অধ্যাপক। ১ নম্বর ওয়ার্ডে লড়ছেন আশিস কুমার ত্রিবেদী। ২ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপির হয়ে দাঁড়াচ্ছেন রাজেন্দ্রপ্রসাদ সাউ। ৩ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী অনিমা সিং। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে শ্রীরাম যাদব, ২২ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের মুখ মীনাদেবী পুরোহিত। ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে  প্রার্থী বিজয় ওঝা। ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের মুখ সজল ঘোষ।

এদিন বিজেপির রাজ্য-সহ সভাপতি তথা কলকাতা পুরভোটের নির্বাচনী ইনচার্জ প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘রবিবার আমাদের নির্বাচনী কমিটির বৈঠক হয়েছিল। সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে এই তালিকা। রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের অনুমোদনের পরই আজ আমরা তালিকা ঘোষণা করছি।’

সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতেই বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘কলকাতা হাওড়া-সহ সমস্ত কর্পোরেশন ও মিউনিসিপ্যালিটির নির্বাচন একইদিনে একই সময় করার দাবি নিয়ে আমরা আদালতে গিয়েছি। কিছু মানুষের আবেগ, তাঁদের দীর্ঘদিনের হতাশা, তাঁদের ক্ষোভকে সঙ্গে নিয়ে আমরা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলাম। আমরা আগেরদিনও বলেছি, আদালতের দুর্বোধ্য অবস্থানের কারণে এক তরফা ভাবে কলকাতা পুরভোটের দিন ঘোষণা হয়ে গেল। নির্বাচন হচ্ছে। বিজেপি কোনও অবস্থাতেই আদালতকে সামনে রেখে নির্বাচনের ময়দান ছেড়ে চলে যেতে চায়নি। আমরা বলেছিলাম, কোর্টেও আছি মাঠেও আছি। কলকাতা পুরভোটের জন্য আমাদের প্রার্থী তালিকার ৭৫ শতাংশ নাম গত দু’মাস আগে ঠিক হয়ে গিয়েছিল। আদালতের দরজা এবং বিশেষ করে তৃণমূল কংগ্রেস ও রাজ্য নির্বাচন কমিশনের আচরণ সমস্ত কিছুকে সঙ্গে নিয়েই আজ আমাদের দলের ১৪৪ জনের তালিকা ঘোষণা করলাম।’

প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর শমীক ভট্টাচার্য আরও বলেন, ‘আমাদের দলের কাজের একটা নির্দিষ্ট ধরন রয়েছে। কারও ব্যক্তিগত ইচ্ছা অনিচ্ছার উপর বিজেপির প্রার্থী তালিকা ঠিক হয় না। পার্টির ইচ্ছা, পার্টির ঐক্যমতই এখানে শেষ কথা। পার্টির সিদ্ধান্তই শেষ কথা।’ বিজেপির প্রার্থী তালিকায় ‘শহিদ’ পরিবারের সদস্যের নাম থাকতে পারে বলেও শোনা গিয়েছিল। এ ক্ষেত্রে কাঁকুরগাছির নিহত বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকারের দাদা বিশ্বজিৎ সরকারের প্রার্থী হওয়ার কথাও শোনা গিয়েছিল। যদিও তা হয়নি।

কিন্তু এদিন এ প্রসঙ্গেও শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘আমরা পরিবারতন্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করি না। তৃণমূল বা কংগ্রেসী ঘরানার রাজনীতির সঙ্গে বিজেপির এখানেই পার্থক্য। আর শহিদ পরিবারকে রাজনীতির প্রাঙ্গনে নিয়ে এসে সব জায়গায় ব্যবহার করতে নেই। নির্দিষ্ট বিশ্বাস আছে। সেই আঙ্গিকে তাঁরা কথা বলবেন। কিন্তু তাঁদের এনে সামগ্রিক রাজনৈতিক লাভের রাজনীতিতে আমরা বিশ্বাস করি না।’