বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই, ২০২২

বিতর্কিত মন্তব্যের জের! নারকেলডাঙ্গার পর এবার নুপুর শর্মাকে তলব আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার

চৈত্রী আদক

প্রকাশিত: জুন ২৩, ২০২২, ০৯:১৭ পিএম | আপডেট: জুন ২৩, ২০২২, ০৯:১৭ পিএম

বিতর্কিত মন্তব্যের জের! নারকেলডাঙ্গার পর এবার নুপুর শর্মাকে তলব আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার
বিতর্কিত মন্তব্যের জের! নারকেলডাঙ্গার পর এবার নুপুর শর্মাকে তলব আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার

বংনিউজ২৪×৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ হজরত মহম্মদকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জের অব্যাহত। নারকেলডাঙ্গার পর এবার নুপুর শর্মাকে তলব করল আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার পুলিশ। নুপুর শর্মার বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ভঙ্গের অভিযোগ দায়ের করা হয় আমহার্স্ট স্ট্রিট থানায়। আগামী ২৫ জুন প্রাক্তন বিজেপি নেত্রীকে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এই নিয়ে সব মিলিয়ে কলকাতায় মোট ১০ টি থানায় তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। কয়েকদিন আগেই পয়গম্বর বিতর্কে নারকেলডাঙ্গা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল নুপুর শর্মার বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের উপর ভিত্তি করে গত ২০ জুন প্রাক্তন বিজেপি নেত্রীকে তলব করেছিল কলকাতা পুলিশ। যদিও সেদিন হাজিরা দেননি তিনি। ইমেল করে চার সপ্তাহ সময় চেয়ে নেন। এরই মাঝে আবার নুপুর শর্মাকে তলব করল আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার পুলিশ।

প্রসঙ্গত, বেশ কয়েকদিন আগে হজরত মহম্মদকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন প্রাক্তন বিজেপি নেত্রী নুপুর শর্মা। তাঁর মন্তব্যকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে গোটা দেশ। বিক্ষোভে সামিল হন বাংলার আমজনতাও। বিশেষ করে কলকাতা ও হাওড়ার পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। রাস্তা বন্ধ করে চলে লাগাতার অবরোধ। লাইন দিয়ে আটকে পড়ে বাস, গাড়ি। উলুবেড়িয়ায় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। আগুন জ্বালানো হয় পুলিশের গাড়িতেও। এমনকি মহকুমাশাসকের কার্যালয় পর্যন্ত ভাঙচুর করা হয়।

ডোমজুড়, সাঁকরাইল, পাঁচলা, উলুবেড়িয়া, মনসাতলা, চেঙ্গাইল, নিমদীঘি, গঙ্গারামপুর, বাজারপাড়া, ফুলেশ্বর, রাজাপুর, কুর্চি শিবপুর, খালাতপুর, গড় ভবানীপুর, উদয়নারায়ণপুর, বাগনান এলাকার বেশ কিছু জায়গা সহ আরও কয়েকটি এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। টানা তিন দিনের জন্য বন্ধ করা হয় ইন্টারনেট পরিষেবা।

বাংলার সম্প্রীতি ও সংহতির পথে কোনও অশান্তি যাতে বাধা হয়ে না দাঁড়ায় সেই প্রসঙ্গে বক্তব্য রেখেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ট্যুইটে লিখেছিলেন, “আগেও বলেছি, দুদিন ধরে হাওড়ার জনজীবন স্তব্ধ করে হিংসাত্মক ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। এর পিছনে কিছু রাজনৈতিক দল আছে এবং তারা দাঙ্গা করাতে চায়-কিন্তু এসব বরদাস্ত করা হবে না এবং এসবের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা হবে। পাপ করল বিজেপি, কষ্ট করবে জনগণ।” এরপরই তিনি রাজনৈতিক নেত্রীর বিরুদ্ধে বাংলার বিভিন্ন থানায় অভিযোগ দায়ের করার কথা বলেন। মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ মেনেই কলকাতার একের পর এক থানায় নুপুর শর্মার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা শুরু হয়।