বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই, ২০২২

দল বদল! এবার কি সাংসদ পদও ছাড়বেন? কী বললেন অর্জুন সিং?

আত্রেয়ী সেন

প্রকাশিত: মে ২২, ২০২২, ০৯:৩২ পিএম | আপডেট: মে ২২, ২০২২, ০৯:৩২ পিএম

দল বদল! এবার কি সাংসদ পদও ছাড়বেন? কী বললেন অর্জুন সিং?
দল বদল! এবার কি সাংসদ পদও ছাড়বেন? কী বললেন অর্জুন সিং?

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ পদ্ম শিবির থেকে আজই জোড়াফুল শিবিরে ফিরেছেন বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। বেশ কিছুদিন ধরেই অর্জুন সিং-এর তৃণমূলে ফেরার জল্পনা চলছিল। আজ সেই সব জল্পনার অবসান। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়ার তিন বছর পরে ফের তৃণমূলে ফিরলেন অর্জুন সিং। 

এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসে গিয়ে নিজের পুরনো দলে ফের যোগ দেন অর্জুন সিং। এদিনের এই যোগদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর ২৪ পরগণা জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। ছিলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, রাজ চক্রবর্তী, পার্থ ভৌমিক প্রমুখ। এদিন তৃণমূলে যোগদানের পরেই বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন অর্জুন সিং।

এদিন অর্জুন সিংকে দলে স্বাগত জানান তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বারাকপুরের সাংসদ এদিন পদ্মশিবির ছাড়ার পর, টুইট করে অভিষেক লেখেন, ‘অর্জুন সিংকে স্বাগত। কারণ উনি বিভেদকামী শিবির ত্যাগ করে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। বিজেপির জন্য গোটা দেশের মানুষ ভুগছে। তাদের আমাদের প্রয়োজন। আসুন লড়াইটা বাঁচিয়ে রাখি।’

এদিকে, তৃণমূলে যোগ দিয়েই আক্রমণাত্মক মেজাজে দেখা গেল অর্জুন সিং-কে। কেন দল ছাড়লেন? কেনই বা ফের তৃণমূলে ফিরলেন? সবেরই উত্তর দিয়েছেন অর্জুন সিং। উল্লেখ্য, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পর বিজেপির পতাকায় সাংসদ নির্বাচিত হন অর্জুন সিং। এদিকে, দল বদলের পর সদ্য বিজেপি পতাকায় জেতা সাংসদ পদ ত্যাগ করেছেন বাবুল সুপ্রিয়। কাজেই স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে এই পরিস্থিতিতে যে, অর্জুন সিং-ও কি নিজের সাংসদপদ ত্যাগ করবেন? এই প্রশ্নের জবাবে অর্জুন সিং স্পষ্ট জানিয়েছেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতীকে জিতেছিলেন এমন দুজন সাংসদ রয়েছেন যারা বর্তমানে বিজেপি করছেন। তাঁরা রিজাইন করুক। আমার একঘণ্টা লাগবে না। রিজাইন করে ইলেকশনে যাওয়ার জন্য আমি তৈরি আছি। আমি বর্তমানে যে দলে আছি, সেই দল যে সিদ্ধান্ত দেবে তা মেনে চলতে আমার এক সেকেন্ডও লাগবে না।’

এদিন অর্জুন সিং দল ছাড়ার প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘যে ঘরের ছেলে ছিলাম, সেই ঘরেই ফিরেছি। মাঝখানে কিছু ভুল বোঝাবুঝিতে বিজেপিতে গিয়েছিলাম।’ এরপর রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, ‘শুধু ফেসবুক এবং ঠাণ্ডা ঘরে বসে রাজনীতি করতে চাইছে গেরুয়া শিবির। বাংলায় এভাবে কাজ হয় না। এখানে মাটিতে থেকে রাজনীতি করতে হয়।’ এখানেই শেষ নয়, তিনি আরও জানান যে, আগামী দিনে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশীর্বাদ নিয়েই নিজের কাজ শুরু করবেন তিনি, এমনটাই জানিয়েছেন বারাকপুরের সাংসদ।