ঘর-সংসার-সন্তান সামলে, দু’চোখে গোল্ড মেডালিস্ট হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে কলেজে ভর্তি হলেন কণীনিকা!

ঘর-সংসার-সন্তান সামলে, দু’চোখে গোল্ড মেডালিস্ট হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে কলেজে ভর্তি হলেন কণীনিকা!
ঘর-সংসার-সন্তান সামলে, দু’চোখে গোল্ড মেডালিস্ট হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে কলেজে ভর্তি হলেন কণীনিকা!

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ এই বয়সেও ফের কলেজে। নতুন করে পড়াশোনার শুরু কণীনিকার। দু’চোখ ভরা স্বপ্ন, গোল্ড মেডালিস্ট হওয়ার। হ্যাঁ ঠিকই শুনছেন। তবে, এটা বাস্তবের ঘটনা নয়, এটা অভিনেত্রী কণীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নতুন ধারাবাহিকের গল্প। যার অন্যতম কেন্দ্রীয় চরিত্র তিনি।

কিছুদিন আগেই মা হয়েছেন অভিনেত্রী কণীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। মেয়েকে বড়ো করতে গিয়ে অভিনয় থেকে সম্পূর্ণ বিরতি নিয়েছিলেন অভিনেত্রী। বেশ কিছুটা বড় হয়েছে কনীনিকার মেয়ে। লকডাউনে প্রায় এক বছরের বেশি সময় ঘর-সংসার আর মেয়েকে নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন অভিনেত্রী কণীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে, ঘর-সংসার সামলানোর পাশাপাশি অভিনয়কে ভোলেননি তিনি। তাই মেয়ে একটু বড় হতেই ফের ফিরছেন অভিনয়ে।

অভিনেত্রী কণীনিকা জানিয়েছেন, তিনি ছোটবেলায় স্বপ্ন দেখতেন অভিনেত্রী হওয়ার। কিন্তু মা হওয়ার পর তাঁর স্বপ্নগুলো বদলে গেছে। কণীনিকার মা চাইতেন, মেয়ে ডাক্তার হবে, কিন্তু তাঁর বাবা সবসময় মেয়ের ইচ্ছেকে সমর্থন করেছেন। বাবার সমর্থনেই তিনি একসময় থিয়েটারে অভিনয় শুরু করেন। সেই থেকে তাঁর অভিনয় করার স্বপ্নপূরণের শুরু।

এবার সেরকমই এক স্বপ্ন পূরণের গল্প নিয়ে ছোটপর্দায় আসছেন অভিনেত্রী কণীনিকা। কণীনিকার নতুন ধারাবাহিকের নাম ‘আয় তবে সহচরী’। উল্লেখ্য, এই ধারাবাহিকের হাত ধরেই ফের মুখ্য চরিত্রে কণীনিকা। সেই মেগা ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্র সহচরীও তাঁর মতোই ব্যস্ত ঘর-সংসার এবং সন্তান নিয়ে। এ সবের মধ্যেও তাঁর একটি ইচ্ছে বা স্বপ্ন রয়েছে। সে স্বপ্ন দেখে, গোল্ড মেডালিস্ট হওয়ার। সেই স্বপ্ন পূরণ করতে কলেজে ভর্তি হয়, সহচরী। সেখানেও যে বিপত্তি! তাঁর সহপাঠীরা সকলেই তাঁর থেকে বয়সে অনেকটাই ছোট। কাজেই বন্ধু হওয়া প্রায় অসম্ভব। কিন্তু সেই অসম্ভবকেই সম্ভব করল, তাঁর সঙ্গে পরিচয় হওয়া বরফি। এরপর প্রায় সন্তানের বয়সী এক মেয়ের সঙ্গে সহচরীর গভীর বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে।

সোমবার অনলাইন সাংবাদিক সম্মেলনে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, রিয়েল লাইফেও তাঁর অনেক বন্ধু আছেন, যাঁরা তাঁর থেকে প্রায় ১০-১৫ বছরের বড়। তিনি মনে করেন, একমাত্র মেয়েরাই মেয়েদের সবচেয়ে ভালো বন্ধু হতে পারে। পর্দায় তাঁর বন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করবেন অরুণিমা হালদার। শ্যুটিং এখনও শুরু হয়নি কিন্তু প্রোমো শ্যুটের দিন থেকেই ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্রী নবাগতা অরুণিমার সঙ্গে বন্ধুত্ব জমে গেছে কণীনিকার।