সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২

বিপাকে জন বার্লা, সরকারি জমি দখল করে প্লট বিক্রির অভিযোগ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে! শুরু তদন্ত

০৩:২৬ পিএম, জুলাই ১২, ২০২১

বিপাকে জন বার্লা, সরকারি জমি দখল করে প্লট বিক্রির অভিযোগ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে! শুরু তদন্ত

সম্প্রতি মোদির মন্ত্রীসভায় ঠাঁই পেয়েছেন আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সাংসদ জন বার্লা। তিনি এখন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তবে কিছুদিন আগেই তাঁর বিরুদ্ধে সরকারি জমি দখল করে প্লট বিক্রির মারাত্মক অভিযোগ সামনে আসে। তার জেরেই এবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত শুরু হল। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গেই দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, জন বার্লার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে তৃণমূলের আলিপুরদুয়ার জেলা সভাপতি কৃষ্ণকুমার কল্যাণী। আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, চামুর্চিতে সরকারি জমি দখল করে বহুতল নির্মাণ করা হচ্ছে। ওই সরকারি জমিতে প্লট তৈরি করে ২০-২৫ লক্ষ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। পুরো বিষয়টিই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জন বার্লার নির্দেশে হচ্ছে। এ নিয়ে জেলা প্রশাসনের কাছে নালিশও জানিয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব। ওই জমির নথি ও বহুতল ভবনের ছবিও জেলা প্রশাসনের কাছে জমা দেওয়া হয়েছে।

এরপরই নড়েচড়ে বসেছে আলিপুরদুয়ার জেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যেই ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরকে ওই জমি সংক্রান্ত যাবতীয় অভিযোগ খতিয়ে দেখে রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। জমিটি বর্তমানে কী পরিস্থিতিতে রয়েছে, তা জানতেও রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে প্রশাসন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগে সরকারি তরফে যে তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে, একথা বেশ স্পষ্ট।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই উত্তরবঙ্গকে পৃথক রাজ্য করার দাবী তুলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন জন বার্লা। এবার তাঁর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগকে কেন্দ্র করে নয়া জল্পনা শুরু। যদিও এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকারও করেননি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। বরং তাঁর সাফাই, "সরকারি জমির উপর তৃণমূলের পার্টি অফিসও তো রয়েছে। তাছাড়া ওই জমি দখল করিনি আমি। সরকারি জমিতে যে বাড়ি তৈরি হয়েছে, সেখানে কমিউনিটি সেন্টার বানানো হবে, মহিলাদের ট্রেনিং দেওয়া হবে।"