বড় সাফল্য! কাশ্মীরে এনকাউন্টারে খতম লস্কর-ই-তৈবার শীর্ষ কমান্ডার

বড় সাফল্য! কাশ্মীরে এনকাউন্টারে খতম লস্কর-ই-তৈবার শীর্ষ কমান্ডার
বড় সাফল্য! কাশ্মীরে এনকাউন্টারে খতম লস্কর-ই-তৈবার শীর্ষ কমান্ডার

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ফের কাশ্মীর উপত্যকায় সন্ত্রাস দমনে বড় সাফল্য নিরাপত্তাবাহিনীর ঝুলিতে। এনকাউন্টারে খতম লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গি সংগঠনের সদস্য নাদিম আবরার-সহ দুই জঙ্গিকে। এমনটাই জানিয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ। পারিমপোরা চেকপোস্টে একটি গাড়ি আটকে পরিচয় জানতে চাইলে, পিছনে বসে থাকা এক জঙ্গি ব্যাগ থেকে গ্রেনেড বের করতে যায়। সেই সময় পুলিশ ওই পিছনে বসে থাকা ব্যক্তিকে আটকায়। শুধু আটকানোই নয়, সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয় ওই দুই ব্যক্তিকে। পরে জানা যায় যে, ওই ব্যক্তি আদতে লস্কর-ই-তৈবার কম্যান্ডার নাদিম আবরার।

নাদিম আবরার-এর কাছ থেকে একটি পিস্তল এবং গ্রেনেড উদ্ধার করা হয়। এরপর সেখান থেকে আবরারকে নিয়ে যাওয়া হয় অন্য একটি বাড়িতে, খবর ছিল সেখানে আরও একে-৪৭ আছে। কিন্তু সেই বাড়িতে ঢোকামাত্রই নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে লুকিয়ে থাকা এক পাকিস্তানি জঙ্গি। পাল্টা জবাব দেয় নিরাপত্তাবাহিনীও। গুলির আঘাতে আহত হন ৩ জন সিআরপিএফ জওয়ান। অন্যদিকে, বাহিনীর পাল্টা জবাবে প্রাণ হারায় নাদিম আবরার ও ওই পাকিস্তানি জঙ্গি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, জম্মু বিমানঘাঁটিতে জোড়া হামলার পর থেকে একের পর এক নাশকতার ছক উঠে আসছে পুলিশের হাতে। প্রথমে জম্মু থেকে আইইডি-সহ গ্রেফতার হয় লস্কর-ই-তৈবার এক জঙ্গি, তারপর অবন্তীপোরায় স্পেশাল পুলিশ অফিসারকে সপরিবারে খুন, আর এবার নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে খতম নাদিম আবরার। এক সপ্তাহের মধ্যে একের পর এক ঘটনায় উত্তপ্ত উপত্যকা।

এদিকে বিশ্লেষকদের মতে, ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনীর একের পর এক অভিযানে উপত্যকায় নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে বিপাকে পড়েছে পাকিস্তানের মদতপুষ্ট সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলি। আর সেই কারণেই লস্কর-ই-তইবা, জইশ-ই-মহম্মদের মতো সংগঠনগুলি পালটা হামলা চালিয়ে, তাদের সদস্যদের মনোবল কিছুটা চাঙ্গা করে তুলতে চাইছে। একের পর এক সন্ত্রাসবাদী হামলা তারই প্রমাণ। তবে, ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর পাল্টা জবাবে খোদ লস্কর কমান্ডার-সহ সন্ত্রাসবাদীদের মৃত্যু বড় আঘাত তাদের জন্য।