কোভিড পজিটিভ ‘কোকিলকণ্ঠী’ লতা মঙ্গেশকর! বর্ষীয়ান গায়িকা ভর্তি আইসিইউ-তে

কোভিড পজিটিভ ‘কোকিলকণ্ঠী’ লতা মঙ্গেশকর! বর্ষীয়ান গায়িকা ভর্তি আইসিইউ-তে
কোভিড পজিটিভ ‘কোকিলকণ্ঠী’ লতা মঙ্গেশকর! বর্ষীয়ান গায়িকা ভর্তি আইসিইউ-তে

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ এবার করোনা আক্রান্ত হলেন বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী ‘কোকিলকণ্ঠী’ লতা মঙ্গেশকর। ৯২ বছরের লতা মুম্বইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিউতে ভর্তি। এক সর্বভারতীয় সংবাদ সংস্থাকে এই প্রবাদপ্রতিম সঙ্গীতশিল্পীর ভাইঝি জানিয়েছেন যে, ‘প্রবাদপ্রতিম সঙ্গীতশিল্পী লতা মঙ্গেশকর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃদু উপসর্গ রয়েছে তাঁর। তবে, বয়স ও অন্যান্য শারীরিক পরিস্থিতির কথা ভেবেই তাঁকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে।আমাদের ব্যক্তিগত পরিসরকে সম্মান জানানোর জন্য ধন্যবাদ। দয়াকরে ওঁর জন্য প্রার্থনা করবেন।’

বর্তমানে দেশের করোনা পরিস্থিতি বেশ উদ্বেগজনক। নতুন করে ঝড়ের গতিতে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। যদিও গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের হার সাড়ে ৬ শতাংশ কমেছে। তবে, একদিনে ১ লক্ষ ৬৮ হাজার আক্রান্তের সংখ্যাটা নেহাত স্বস্তিদায়ক নয়। উদ্বেগ বাড়াচ্ছে ঊর্ধ্বমুখী অ্যাকটিভ কেসও। এমন পরিস্থিতিতে বহু তারকা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

মঙ্গলবার ৯২ বছরের সংগীতশিল্পীর কোভিড পজিটিভ হওয়ার খবরে স্বাভাবিকভাবেই চিন্তিত তাঁর অনুরাগীরা।এদিকে, চিকিৎসকরা প্রত্যেক মুহূর্তে তাঁর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছেন। এমনটাও শোনা যাচ্ছে যে, লতা মঙ্গেশকরকে ককটেল থেরাপি দেওয়া হতে পারে। এমনিতে বেশ কয়েক বছর ধরেই তিনি গৃহবন্দী। খুব একটা বাড়ির বাইরে বেরোন না, বাড়িতেই থাকেন এই কিংবদন্তি শিল্পী। তাও কীভাবে তিনি সংক্রমিত হলেন, তা নিয়ে চিন্তিত অনেকে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ১৯২৯ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর মধ্যপ্রদেশের ইনদোরের এক সংগীত পরিবারে জন্ম হয় লতা মঙ্গেশকর। বাবা দীননাথ মঙ্গেশকর ছিলেন মারাঠি সংগীত জগতের সুবিখ্যাত ধ্রুপদী গায়ক। বাবার থেকেই প্রথম সঙ্গীতের তালিম নেওয়া। মাত্র ১৩ বছর বয়সে প্রথম একটি সিনেমার জন্য গান রেকর্ড করলেও, তা পরবর্তী সময়ে ছবি থেকে বাদ পড়ে। ১৯৪৫ সালে মুম্বইয়ে পাড়ি দেন। তারপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। ১৯৫০ থেকে দীর্ঘ কয়েক দশক ‘কোকিলকণ্ঠী’র গান মুগ্ধ করেছে দেশবাসীকে।

বলিউডের সুরের এই জাদুকরী তাঁর মধুর কণ্ঠ এবং সুরসাধনার জন্য জীবনের বিভিন্ন সময়ে নানা সম্মানে ভিসিত হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে দাদাসাহেব ফালকে, ফ্রান্স সিভিলিয়ন অ্যাওয়ার্ড, অফিসার অব দ্য লিজিয়ন অনার সহ-একাধিক সংখ্যক জাতীয় পুরস্কার ও আন্তর্জাতিক পুরস্কার।সর্বাধিক প্লেব্যাক গায়িকা হিসেবে গিনিস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডেও জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। সঙ্গে পেয়েছেন বিশ্বব্যাপী মানুষের ভালোবাসা এবং বিপুল জনপ্রিয়তা। আজ তিনি করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় তাঁর অসংখ্য অনুরাগীরা তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করছেন।