প্রত্যুষা, সুরেখা তারপরই সিদ্ধার্থ! না ফেরার দেশে একে একে পাড়ি দিলেন ‘বালিকা বধূ’ খ্যাত শিল্পীরা

প্রত্যুষা, সুরেখা তারপরই সিদ্ধার্থ! না ফেরার দেশে একে একে পাড়ি দিলেন ‘বালিকা বধূ’ খ্যাত শিল্পীরা
প্রত্যুষা, সুরেখা তারপরই সিদ্ধার্থ! না ফেরার দেশে একে একে পাড়ি দিলেন ‘বালিকা বধূ’ খ্যাত শিল্পীরা

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ জীবনটা সত্যিই খুব অনিশ্চিত। মাত্র ৪০ বছর বয়সে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লেন বলিউড এবং হিন্দি টেলি ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্লা। বালিকা বধূ প্রমুখ সিরিয়ালে অভিনয় করে জিতে নিয়েছিলেন সহস্র মানুষের মন। আর ইতিহাস তৈরি করেছিলেন দেশের অন্যতম সেরা রিয়েলিটি শো বিগ বসের হাউসে। তার হাসি, কান্না, রাগ সবই যেন জুড়ে আছে বিগ বসের ঘরের প্রতিটি কোনায়। একটা রাগী মানুষের ভেতর থেকে কিভাবে একটি শিশু সুলভ ব্যক্তিত্ব বেরিয়ে আসতে পারে তার সাক্ষী বিগ বস হাউস আর সিডনাজ।

টেলিইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় সিরিয়াল বালিকা বধূর হাত ধরেই এই জগতে পা দেন সিদ্ধার্থ শুক্লা। এই সিরিয়ালে তাঁর বিপরীতে ছিলেন বঙ্গকন্যা প্রত্যুষা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই শো এর মুলত তিনটি চরিত্রই প্রধান ছিল আনন্দি ওরফে প্রত্যুষা, আনন্দির দ্বিতীয় স্বামী শিব শেখর অর্থাৎ সিদ্ধার্থ এবং দাদিসা অর্থাৎ সুরেখা সিক্রি। কি অদ্ভুদ ভাবে এই তিনটি মানুষই এই জগতে আর নেই। অভেনেত্রি সুরেখা সিক্রির মৃত্যু চলতি বছর হয়। বার্ধক্য জনিত কারণে মৃত্যু হয় তাঁর। তাই ভক্তরা খুব স্বাভাবিক ভাবেই মেনে নিয়েছিল এই মৃত্যু। কিন্তু মাত্র ২৪ বছর বয়সে আত্মঘাতী হন আনন্দি ওরফে প্রত্যুষা বন্দ্যোপাধ্যায়। আত্মহত্যা করেন এই অভিনেত্রী। কিন্তু কাম্যা পাঞ্জাবি ও প্রযোজক বিকাশ গুপ্ত জানিয়েছিলেন, প্রত্যুষার প্রেমিক অভিনেতা রাহুলরাজ সিংহ তাঁকে মানসিক ও শারীরিক ভাবে অত্যাচার করতেন। সেই নিয়ে কোর্টে মামলা আজও চলছে। ২০১৬ সালে মৃত্যু হয় এই ফুটফুটে অভিনেত্রীর।

আবার ২০২১ এর ২রা সেপ্টেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন শিব ওরফে সিদ্ধার্থ শুক্লা। ভক্তরা কোনও ভাবেই মেনে নিতে পারছে না এত কম বয়সে প্রতিভাবান শিল্পীদের মৃত্যু। মাত্র ৪০ বছরেই না ফেরার দেশে পাড়ি দিলেন সিদ্ধার্থ শুক্লা।