উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্টের আগে, চলতি মাসের এই তারিখে মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ, রইল বিস্তারিত

উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্টের আগে, চলতি মাসের এই তারিখে মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ, রইল বিস্তারিত
উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্টের আগে, চলতি মাসের এই তারিখে মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ, রইল বিস্তারিত / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ জল্পনা একটা ছিলই। অবশেষে ঘোষণা হল মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশের দিন। এ বছরে মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ হতে চলেছে চলতি মাসের ২০ তারিখ। সকাল ১০ টা থেকে ১২টি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে রেজাল্ট জানতে পারবে পড়ুয়ারা। আর যেদিন ফলপ্রকাশ হবে, সেদিনই পড়ুয়ারা হাতে পাবে মার্কশিটও। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ সূত্রে খবর, প্রত্যেক বছরের মতো এবারও সকাল ৯ টায় সাংবাদিক বৈঠক করেই ফল প্রকাশ করবেন পর্ষদ সভাপতি।

করোনা অতিমারি পরিস্থিতির কারণে এবছর মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। শুরু থেকেই মাধ্যমিক পরীক্ষা হওয়া নিয়ে বিস্তর টালবাহানা চলে। নবান্ন থেকে পরীক্ষার দিন ঘোষণা করা হলেও, শেষপর্যন্ত জনমতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত বদল করেন মুখ্যমন্ত্রী। পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে, বাতিল হয়ে যায় পরীক্ষা। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন ওঠে তাহলে কীভাবে মূল্যায়ন হবে ছাত্র-ছাত্রীদের?

এরপর সাংবাদিক বৈঠক করে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের চেয়ারম্যান কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় জানান, ৫০-৫০ অনুপাতে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন হবে। অর্থাৎ মাধ্যমিকের বিকল্প হিসেবে নবম শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষার ফল এবং দশম শ্রেণির অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের ভিত্তিতে ফলপ্রকাশ করা হবে। নবম শ্রেণির পরীক্ষার ফল থেকে ৫০ এবং দশম শ্রেণির ইন্টারনাল অ্যাসেসমেন্ট থেকে ৫০ নম্বর নিয়ে মূল্যায়ন করা হচ্ছে এ বছর।

পাশাপাশি এও বলা হয় যে, ওই নম্বরে কেউ সন্তুষ্ট না হলে, আবেদন করা যাবে। সেক্ষেত্রে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবে ছাত্র-ছাত্রীরা। তখন আগের নম্বর বাতিল হয়ে যাবে এবং পরীক্ষা দেওয়ার পর যে নম্বর পাবে পড়ুয়ারা, সেই নতুন নম্বর চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে। সেই প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতেই নতুন মার্কশিটও দেওয়া হবে। উল্লেখ্য, মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশের ২ দিন পর, ২২ জুলাই প্রকাশিত হতে চলেছে এ বছরের উচ্চ মাধ্যমিকের ফল। জানা গিয়েছে, বিকেল ৪ টে থেকে এসএমএস, মোবাইল অ্যাপ, ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফল জানতে পারবেন ছাত্রছাত্রীরা। পরের দিন ২৩ জুলাই সকাল ১১টা থেকে মার্কশিট ও অন্যান্য শংসাপত্র সংগ্রহ করা যাবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এ বছর পরীক্ষা না হওয়ায়, পরীক্ষার্থীদের অ্যাডমিট কার্ডও দেওয়া হয়নি। তাই নবম শ্রেণিতে ওঠার পর তারা যে রেজিস্ট্রেশন নম্বর পেয়েছিল, তারই ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বর জানতে পারবে। একইসঙ্গে পর্ষদ সূত্রে খবর, এবার মার্কশিট যেদিন পড়ুয়ারা হাতে পাবে, একই সঙ্গে দেওয়া হবে অ্যাডমিট কার্ডও। কারণ, মাধ্যমিকের অ্যাডমিট কার্ড পড়ুয়াদের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি নথি। ভবিষ্যতেও তা অনেক কাজে লাগে। সে কারণেই পর্ষদের তরফে এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে।