মহারাষ্ট্রের গড়চিরোলিতে বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে খতম ১৩ জন মাওবাদী! এখন জারি গুলির লড়াই

মহারাষ্ট্রের গড়চিরোলিতে বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে খতম ১৩ জন মাওবাদী! এখন জারি গুলির লড়াই
মহারাষ্ট্রের গড়চিরোলিতে বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে খতম ১৩ জন মাওবাদী! এখন জারি গুলির লড়াই / ছবি সৌজন্যে- Facebook-Posted-By-@CentralReservePolice

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ শুক্রবার পূর্ব বিদর্ভের গড়চিরোলির পোতেগাঁও ও রাজোলির মধ্যবর্তী একটি জঙ্গলে সুরক্ষা বাহিনীর সঙ্গে লড়াইয়ে ১৩ জন মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে। এই সংঘর্ষে এখনও পর্যন্ত প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত জানা গিয়েছে যে, এখনও দু’পক্ষের মধ্যে তীব্র গুলির লড়াই চলছে।

সংবাদ সংস্থা সূত্রের খবর, মহারাষ্ট্র পুলিশের কাছে গতকাল রাতেই গোপন সূত্রে খবর আসে যে, এতাপল্লির জঙ্গলে আত্মগোপন করে রয়েছে বেশ কিছু মাওবাদী। এই খবর পাওয়া মাত্রই, তল্লাশি অভিযানে বেরিয়ে পড়ে, মাওবাদী দমনের উদ্দেশে গঠিত মহারাষ্ট্র পুলিশের সি-৬০ ইউনিট। আজ ভোরে জঙ্গলের একটা অংশ ঘিরে ফেলেন জওয়ানরা।

জঙ্গলে বাহিনীর উপস্থিতির কথা জানতে পেরেই, এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে জঙ্গলে আত্মগোপন করে থাকা মাওবাদীরা। এর পাল্টা জবাব দেয় বাহিনীও। প্রথমে ঘটনাস্থলেই ৮ মাওবাদীর মৃত্যু হয়। পরে আরও ৫ মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। এই মৃত মাওবাদীদের দেহের কাছ থেকে উদ্ধার হয় অস্ত্রশস্ত্র। তাছাড়াও পাওয়া গিয়েছে, কিছু বইপত্র এবং নিত্য প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস।

গড়চিরোলির পুলিশ উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) সন্দীপ পাতিল জানিয়েছেন যে, এই অভিযানটি মহারাষ্ট্র পুলিশের পক্ষে একটি বিশাল সাফল্য এবং এই সংঘর্ষে আরও মাওবাদীর মৃত্যুর সম্ভবনা রয়েছে। কাজেই সংখ্যাটা আরও বাড়তে পারে।

তিনি এই অভিযান প্রসঙ্গে আরও জানিয়েছেন যে, ‘বনের মধ্যে মাওবাদীদের উপস্থিতি সম্পর্কে জানতে পেরে, আমরা একদিন আগেই অভিযান শুরু করেছি। এ পর্যন্ত আমরা ১৩ টি মরদেহ উদ্ধার করার হয়েছে। তল্লাশি এখনও চলছে।’

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, এখনও জঙ্গলে বেশ কয়েকজন মাওবাদী লুকিয়ে রয়েছে। তাঁদের সন্ধানে তল্লাশি অভিযান জারি রয়েছে। পাশাপাশি এখনও চলছে উভয়পক্ষের মধ্যে গুলির লড়াই।