‘কি সুন্দর চলচ্চিত্র’, স্মৃতির পাতা থেকে অমূল্য কিছু ছবি সহ প্রতিক্রিয়া সুশান্তের বন্ধু মহেশের

‘কি সুন্দর চলচ্চিত্র’, স্মৃতির পাতা থেকে অমূল্য কিছু ছবি সহ প্রতিক্রিয়া সুশান্তের বন্ধু মহেশের
‘কি সুন্দর চলচ্চিত্র’, স্মৃতির পাতা থেকে অমূল্য কিছু ছবি সহ প্রতিক্রিয়া সুশান্তের বন্ধু মহেশের

বংনিউজ২৪x৭ বিনোদন ডেস্কঃ এ বছরটা যেমন করোনাময় বলে মনে হচ্ছে, ঠিক সে ভাবেই এ বছরটা সুশান্তময়। সঙ্গে সুশান্ত সিং রাজপুত অভিনীত শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’ তো আছেই। সুশান্তের নাম যতবার সামনে আসবে, ততবারই আলোচিত হবে ‘দিল বেচারা’, তাতে সুশান্তের অভিনয়, আর অবশ্যই ‘দিল বেচারা’র আকাশ ছোঁয়া সাফল্য।

গতকালই এই চলচ্চিত্রটি ডিজনি প্লাস হটস্টারে মুক্তি পেয়েছে। আর মুক্তির সঙ্গে সঙ্গেই সুশান্তের শেষ ছবি বলিউডের প্রথম সারির, বিশেষ করে একছত্র আধিপত্য বিস্তারকারী খানেদের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। আইএমডিবি রেটিং বলছে একেবারে দশে দশ।

এই চলচ্চিত্র দেখার পর বলিউডের অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন, নিজের নিজের মতো করে প্রয়াত অভিনেতাকে স্মরণ করেছেন। ঠিক যেভাবে সুশান্তের প্রিয় বন্ধু টেলিভিশন জগতের অতি পরিচিত মুখ, মহেশ শেঠিও তাঁর হারিয়ে যাওয়া বন্ধুকে স্মরণ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেছেন। যেখানে ‘দিল বেচারা’ নিয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। ইনি সেই মহেশ শেঠি, যাকে মৃত্যুর আগেড় দিন বেশি রাতে শেষবারের জন্য ফোন করেছিলেন সুশান্ত। কিন্তু তাঁদের মধ্যে সেসময় কোনও কথা হয়নি। পরের দিন মহেশ ফোন করলেও, ততক্ষণে সব শেষ।

মহেশ শেঠি তাঁর ইন্সটাগ্রাম পেজে গিয়ে দিল বেচারা’র সেটের বিভিন্ন মুহূর্তের একাধিক ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন। শুধু ছবিই নয়, ভিডিও শেয়ার করেছেন। এই পোস্টের সঙ্গে সুশান্তের বন্ধু তথা অভিনেতা মহেশ শেঠি লিখেছেন যে, ‘আমার নায়ক কি সুন্দর ছবি’। মহেশের শেয়ার করা ছবিতে সুশান্তকে দেখা যাচ্ছে বেশ খোশ মেজাজে। এই ছবিগুলো আরও বেশি করে আপনাকে সুশান্তের অনুপস্থিতিকে মনে করাবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সুশান্ত এবং মহেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘পবিত্র রিস্তা’-তে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন। সুশান্ত সিং রাজপুত মারা যাওয়ার সময় বন্ধু মহেশ তাঁর উদ্দেশে কলম ধরেছিলেন। তিনি লিখেছিলেন, ‘‘আকস্মিক যদি তোমার হৃদয়ের একটা অংশ হারিয়ে ফেল, তবে তুমি কীভাবে তা ব্যাখ্যা করবেন? আপনি কীভাবে নিজেকে বোঝাবেন যে, এখন সব কেন এবং শত শত প্রশ্ন এবং কী-যদি এসব নিয়েই বাঁচতে হবে। আমি দুঃখিত, কিন্তু আমি এখন থেকে সবসময় নিজের মধ্যে অনেক বিদ্বেষ ধরে রাখব। আমার মনে হয়, একবার যদি তুমি তোমার হৃদয় আমার সামনে মেলে ধরতে। তুমি জানতে শেঠি আছে, আর সে তোমার সঙ্গে সবসময় থাকবে। তাহলে কেন? কথা তো বলে নিতে পারতে বন্ধু! আমি এখনও কামনা করি, যদি তোমার সেই কলটি ধরতাম! তাহলে জীবন কখনই আজকের মতো হতো না, আমি জানি তুমি তারা কত ভালোবাসো… ধরতি মা কি কসম, আমি প্রতি রাতে তোমাকে খুঁজছি ভাই…’’।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.