ছ’দিন ধরে নিখোঁজ তৃণমূল নেতা! বিহারে উদ্ধার হল সেই ‘অপহৃত’ নেতার দেহ

ছ'দিন ধরে নিখোঁজ তৃণমূল নেতা! বিহারে উদ্ধার হল সেই 'অপহৃত' নেতার দেহ / প্রতীকী ছবি
ছ'দিন ধরে নিখোঁজ তৃণমূল নেতা! বিহারে উদ্ধার হল সেই 'অপহৃত' নেতার দেহ / প্রতীকী ছবি

ছ’দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন তৃণমূল নেতা আনিসুর রহমান। অবশেষে বিহারের কাটিহারে সন্ধান মিলল সেই নেতার মৃতদেহের। কাটিহার জেলার বলরামপুর থানার রেল লাইন সংলগ্ন এলাকা থেকে পুলিশ উদ্ধার করে তাঁর দেহ। এলাকার ডালখোলা এবং বারসই রেল স্টেশনের মাঝে রেল লাইনের ধারে একটি গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় নেতার মৃতদেহ প্রথম দেখতে পায় স্থানীয়রা। তারা খবর দেওয়ার পরই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। উদ্ধার হয় দেহটি। গোটা ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতদেহ উদ্ধার করার পর ময়নাতদন্তের জন্য তা কাটিহার মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। শনিবার ভোরে নেতার পরিবার গ্রামে ফিরিয়ে নিয়ে আসে মৃতদেহ। জানা গিয়েছে, এ দিন দুপুরে তাঁকে সমাধিস্থ করা হবে। অন্যদিকে, কিছুদিন আগেই ব্যবসায়িক বিবাদের জেরে আনিসুরকে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছিল তাঁর পরিবার। এবার পরিবারের তরফে অভিযোগ উঠল, নেতাকে খুন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পেশায় ইট ব্যবসায়ী আনিসুর মালদার হাতি ছাপা গ্রামের বাসিন্দা। এলাকার তৃণমূল কনভেনারও ছিলেন তিনি। পুলিশ সূত্রে খবর, সুলতাননগর এলাকার এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে টাকাপয়সা নিয়ে আনিসুরের বিবাদ ছিল। তার জেরেই নাকি তাঁকে অপহরণ করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রোজের মতোই রবিবার সকালে ব্যবসার কাজে বেরিয়েছিলেন আনিসুর। তারপর দু’দিন পেরিয়ে গেলেও বাড়ি ফেরেননি তিনি। বন্ধু-বান্ধবদের থেকেও কোনও খোঁজ মেলেনি।

এরপরই মঙ্গলবার রাতে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার দ্বারস্থ হয়েছিল আনিসুরের পরিবার। অভিযোগ উঠেছিল, তাঁকে নাকি অপহরণ করা হয়েছে। এরপরই বিহার থেকে উদ্ধার হল নেতার মৃতদেহ। পুলিশ জানিয়েছে, তদন্ত এখনও চলছে। ঘটনার পিছনে রাজনৈতিক কারণ থাকার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ। তবে আনিসুরের মৃতদেহ উদ্ধারের পর CBI তদন্তের দাবী তুলেছে তাঁর পরিবার।