মালদায় একদিনে ৪ শিশু কোভিড পজিটিভ! গত তিনদিনে ১৩ টি শিশু করোনা আক্রান্ত

মালদায় একদিনে ৪ শিশু কোভিড পজিটিভ! গত তিনদিনে ১৩ টি শিশু করোনা আক্রান্ত
মালদায় একদিনে ৪ শিশু কোভিড পজিটিভ! গত তিনদিনে ১৩ টি শিশু করোনা আক্রান্ত / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ মালদায় করোনা আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলে্ছে। এই ঘটনা ক্রমশই চিন্তার বিষয় হয়ে উঠছে। মালদায় একদিনে ৪ শিশু করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এই নিয়ে গত তিনদিনে মোট ১৩ টি শিশু করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

অন্যদিকে, জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে ইতিমধ্যেই মালদা মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালেই ১০ টি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এই মুহূর্তে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১২৬ জন শিশু ভর্তি রয়েছে। এই শিশুদের মধ্যে ২৬ টি শিশু জ্বর এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে ভর্তি হয়েছে। জানা গিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৫৩ জন শিশু ভর্তি হয়েছে। শুধু মালদা মেডিক্যাল কলেজেই নয়, জেলার অন্যান্য ব্লক হাসপাতালগুলিতেও শিশু ভর্তি রয়েছে।

এদিকে, শিশু ও তার পরিবারের লোকজন যাতে স্বাস্থ্যবিধি নেমে চলে, তা নিয়ে বারবার সচেতনা করছে স্বাস্থ্য দফতর। প্রশাসনকেও সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু অভিযোগ, হাসপাতাল চত্বরেই লঙ্ঘিত হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি। উল্লেখ্য, চলতি মাসের ২০ তারিখ মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আরও এক শিশুর মৃত্যু হয়। শিশুটির বয়স ছিল মাত্র ১ মাস ৬ দিন। গত ১৩ সেপ্টেম্বর মালদা মেডিক্যাল কলেজের মাতৃমা বিভাগে প্রবল জ্বর, শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি হয় ওই শিশু।

মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে খবর, বৈষ্ণবনগর থানার চক বাহাদুরপুরের বাসিন্দা প্রকাশ মণ্ডলের নবজাতক পুত্র আচমকাই জ্বরে আক্রান্ত হয়। চিকিৎসকদের একাংশের দাবি, রক্তে সংক্রমণের দরুণ শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। যদিও, ঠিক কীভাবে সেই সংক্রমণ হল, তা কিন্তু স্পষ্ট বলতে পারছেন না চিকিৎসকরা। তবে, এই শিশুটিরও অন্যান্যদের মতো একই উপসর্গ দেখা গিয়েছিল। প্রবল জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও বুকে ব্যথা। শিশুটিকে প্রাথমিকভাবে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি।

এদিকে, রাজ্য স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে খবর, জ্বরের কারণ খুঁজতে স্কুল অব ট্রপিক্যাল মেডিসিন এবং উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে ভাইরাস প্যানেলে নমুনা পরীক্ষা করা হবে। পাশাপাশি, উপসর্গের নিরিখে কী ধরনের চিকিৎসা করতে হবে সেই সংক্রান্ত প্রোটোকল বিশেষজ্ঞ কমিটি তৈরি করছে। জানা গিয়েছে, দ্রুত তা জেলাস্তরে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। ভাইরাল প্যানেলে পরীক্ষা খরচসাপেক্ষ। তাই কোভিড, ডেঙ্গি, ম্যালেরিয়া, স্ক্রাব টাইফাস ধরা না পড়লে ভাইরাস প্যানেল করতে বলা হয়েছে। এদিকে, জলপাইগুড়িতেও একের পর এক শিশুর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার ফের এক শিশুর শরীরে মেলে করোনা সংক্রমণ। ৮ দিনে ৪ শিশু নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়।