গন্তব্য গোয়া! চলতি মাসের এই তারিখেই যেতে পারেন মমতা-অভিষেক

গন্তব্য গোয়া! চলতি মাসের এই তারিখেই যেতে পারেন মমতা-অভিষেক
গন্তব্য গোয়া! চলতি মাসের এই তারিখেই যেতে পারেন মমতা-অভিষেক

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ত্রিপুরার মতোই তৃণমূল কংগ্রেসের নজরে রয়েছে গোয়া। ত্রিপুরার মতোই ঘাসফুল শিবিরের লক্ষ্য গোয়ার বিধানসভা নির্বাচন। দলীয় সূত্রে খবর, আবারও গোয়া সফরে যেতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এবার তাঁর সফরসঙ্গী হতে চলেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সাগর সৈকতে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের রূপরেখা এবং ঘুঁটি সাজাতেই এই সফর বলে মনে করা হচ্ছে।

সূত্রের খবর,  চলতি মাসের ১৩ ডিসেম্বরই গোয়া সফরে  যেতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী। আর এদিকে, কলকাতা পুরসভার নির্বাচন আগামী ১৯ ডিসেম্বর। তবে, বাংলার পুরভোটের লড়াই বাদ দিয়ে কেন এই সফর? তা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। আসলে ফেব্রুয়ারি মাসেই বিধানসভা নির্বাচন রয়েছে গোয়ায়। তাই হতে আর মাত্র সর্বসাকুল্যে ২ মাস। তাই এবার তৃণমূলের নজর গোয়ায়।

গত অগস্ট মাস থেকেই গোয়ায় সংগঠন সাজিয়ে তুলছে তৃণমূল। সেখানকার বেশ কয়েকজন নেতা–নেত্রী থেকে বিশিষ্ট মানুষজন তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন ইতিমধ্যেই। এমনকী প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লুইজিনহো ফেলেইরো–কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যসভায় পাঠিয়েছেন। আবার লোকসভার সাংসদ মহুয়া মৈত্রকে এখানে দায়িত্ব দিয়ে পাঠানো হয়েছে। গত ২৮ অক্টোবর মুখ্যমন্ত্রী গোয়া গিয়ে সংগঠন বৃদ্ধির বার্তা দিয়েছিলেন। অন্যদিকে, মঙ্গলবার রাহুল গান্ধী গোয়ায় গিয়ে ফরওয়ার্ড পার্টির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে জোটের ঘোষণা করে দিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে এই ঝটিকা সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

তাই এই মুহূর্তে আগামী ১৩ ডিসেম্বর মুখ্যমন্ত্রী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় গোয়া যাচ্ছেন, এটা ধরে নিয়েই প্রচার সূচি তৈরি করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আগামী ৭ ডিসেম্বর উত্তরবঙ্গ সফরে যাবেন মুখ্যমন্ত্রী। দুই দিনাজপুর, মালদহ, মুর্শিদাবাদ এবং নদিয়ায় প্রশাসনিক সভা করার কথা তাঁর। সূত্রের খবর, তারপরে যাবেন গোয়ায়। সেখানে কথা হবে এনসিপি বিধায়ক চার্চিল আলেমাও–এর সঙ্গে।

এবার গোয়া সফরে গিয়ে একটি টিম তৈরি করে দেবেন তাঁরা। যাঁরা বিধানসভা নির্বাচনে কাজ করবেন। আবার সংগঠনের কাজ কারা দেখবেন। প্রচার কমিটিতে কারা থাকবেন, এমনকী কলকাতা থেকে কোন কোন সাংসদ–বিধায়ককে এখানে পাঠানো হবে তাও ঠিক করে দিয়ে আসবেন মমতা–অভি্ষেক। পাশাপাশি সম্ভাব্য একটা প্রার্থী তালিকা তৈরি করে দিয়ে আসবেন তাঁরা এমনটাই সূত্রের খবর। সবমিলিয়ে এই সফর যে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ হতে চলেছে সে কথা বলাই বাহুল্য।