স্পষ্ট বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর, সরকারের সায় নেই বাস ভাড়া বৃদ্ধিতে

স্পষ্ট বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর, সরকারের সায় নেই বাস ভাড়া বৃদ্ধিতে

লকডাউন উঠে বাস পরিষেবা চালু হওয়ার পর সরকারি বিধি নিষেদে এমনিতে বাসের যাত্রী সংখ্যা কম। উপরন্তু নিয়মিত বেড়ে চলেছে ডিজেলের দাম। এই পরিস্থিতি বাস মালিকরা পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছেন যে রাজ্য সরকার বাসের ভাড়া না বাড়ালে তাদের পক্ষে বাস চালানো সম্ভব নয়। অন্যদিকে এদিন সর্বদলীয় বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিস্কার করে দিয়েছেন যে বর্তমান পরিস্থিতিতে বাস ভাড়া বাড়ানোর সায় নেই রাজ্য সরকারের।

এদিন নবান্নে অনুষ্ঠিত হওয়া সবদলের বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যাইয় বেসরকারী বাস মালিকদের উদ্দেশ্য বলেন যে, “’ভাড়া না বাড়ালে বাস নামাব না, সেটা বলার সময় এখন নয়৷ গত তিন মাস আপনাদের কঠিন সময় গিয়েছে, আগামী তিন মাসও হয়তো পরিস্থিতি খারাপ থাকতে পারে৷ কিন্তু ভেবে নিন না আপনারা সামাজিক দায়বদ্ধতার কথা ভেবে পরিষেবা দিচ্ছেন৷” অন্যদিকে বুধবারও শহরের বেশকিছু রুটের বেসরকারী বাস মালিকরা সরকারী অনুমোদন ছাড়াই নিজেদের তরফে বাস ভাড়া বাড়ানোর কথা বলেছেন। বাস মালিকরা দাবী জানিয়েছেন বাসে উঠলেই ন্যূনতম ১০ টাকা বাস ভাড়া বাড়ানোর।

লকডাউন ১.০ শুরু হওয়ার পরপরি যাত্রী সংখ্যা নির্ধারিত করে বেসরকারি বাস এবং মিনিবাস চালানোর অনুমতি দিয়েছিল রাজ্য সরকার। কিন্তু বহু বেসরকারি বাস এখনো ক্ষতির অজুহাত দেখিয়ে রাস্তায় নামেনি। ফলে রাস্তায় যে কটি সংখ্যব বাস রয়েছে তা দিয়ে সমস্যা সামলা দিতে পারা যাচ্ছে না। ফলে রাস্তায় বাস কম থাকায় সংক্রমণের ভয় তাকা সত্ত্বেও ভিড় বাসেই গাদাগাদি করতে বাধ্য হচ্ছেন নিত্য অফিস যাত্রীরা। কিন্তু সমস্ত সমস্যা থাকা সত্ত্বেও এই পরিস্থিতিতে বাস ভাড়া বাড়িয়ে সাধারণ মানুষের উপর চাপ বাড়াতে চাননা মুখমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনে সেই বার্তাই স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। তবে কেন্দ্রীয় সরকারের দ্বারা ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে তিনি সরাসরি প্রতিবাদও করেছেন।

আরও পড়ুনঃ  মালদায় বেশকিছু অভিযোগ নিয়ে পঞ্চায়েত সমিতির সাধারণ বৈঠকে ওয়ার্কআউট করল বিরোধী সদস্যরা

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.