'আপনাদের কিছু হওয়ার আগে যেন আমার হয়, আমি আপনাদের পাহারাদার', আশ্বাসবাণী মমতার
'আপনাদের কিছু হওয়ার আগে যেন আমার হয়, আমি আপনাদের পাহারাদার', আশ্বাসবাণী মমতার

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশে কাবু করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে। বাংলাতেও ভোটের আবহে আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ক্রমশ বাড়ছে সংক্রমণ। বাড়ছে পাল্লা দিয়ে মৃত্যুর সংখ্যাও। সুস্থতার হার বেশ কম।

এই পরিস্থিতিতে বাংলার মানুষকে আশ্বস্ত করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামীকাল রাজ্যে রয়েছে ষষ্ঠ দফার নির্বাচন। এর মধ্যেই বুধবার বালুরঘাটে নির্বাচনী সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার মানুষের উদ্দেশে দিলেন অভয়বাণী, তিনি বললেন, ‘নিশ্চিন্তে থাকুন, নিশ্চিন্তে ঘুমোন। আপনাদের কোনো কিছু হওয়ার আগে যেন আমার হয়। আমি আপনাদের সবচেয়ে বড় পাহারাদার। আমি ঘুরে ঘুরে বেড়াচ্ছি।’

উল্লেখ্য, গত বছর ২০২০ তে দেশে করোনার সংক্রমণ দেখা দেয়, সেই সময় বাংলায় করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রথম সারিতে থেকে পরিশ্রম করতে দেখা গিয়েছে। এমনকি কীভাবে দূরত্ববিধি মেনে চলতে হবে, তা বোঝাতে রাস্তায় ঢিল দিয়ে দাগ কেটে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আবার, করোনাকালে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে মাইকিং করতেও দেখা গিয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

আর এবার যখন করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে দেশের পাশাপাশি বিপর্যস্ত বাংলা, তখন ফের একবার বাংলার মানুষকে নিজস্ব ভঙ্গিতে আশ্বস্ত করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর ভোটের মরশুমে বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে মমতার এই আশ্বাসবাণী বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞমহল।

এদিন তিনি বালুরঘাটের সভা থেকে আরও বলেন যে, ‘চিন্তা করবেন না। সবাইকে যে হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে তার কোনও কারণ নেই।’ করোনা আক্রান্তদের উদ্দেশে তিনি বলেন যে, ‘করোনা আক্রান্তরা ভোটটা নষ্ট করবেন না। জেনে নেবেন, কখন ভোট, সে সময় গিয়ে দেবেন ভোট।’

অন্যদিকে এদিনের সভায় ফের একবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে করোনা নিয়ে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘বলেছিল করোনা চলে গিয়েছিল। তাহলে হল কী করে! অপদার্থ কেন্দ্র সরকার। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছিলেন কোভিড চলে গিয়েছে। আগে থেকে পরিকল্পনা করে না। নির্বাচনের সময় বাংলায় লাখ লাখ লোক ছেড়েছে, যারা কোভিড ছড়াচ্ছে। গুন্ডামি করছে আর রোড ছড়াচ্ছে। এখন বলছে জনগণ ঠিক করবে, এটা মোদী মেড বিপর্যয়।সারা দেশে ওষুধ নেই, ইঞ্জেকশন নেই। সব বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে। দেশে অক্সিজেন নেই, ওষুধ নেই, হাহাকার চলছে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী করোনা প্রসঙ্গে বলেন যে, ‘আমি দেশের মানুষের কাছে অনুরোধ করছি যে, তাঁরা যেন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান। এই মুহূর্তে লকডাউন বলবৎ করার কোনও প্রশ্ন নেই। এই মুহূর্তে দেশকে লকডাউনের থেকে বাঁচাতে হবে। লকডাউন ঠেকাতে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হবে। করোনা মোকাবিলায় লকডাউন সর্বশেষ অস্ত্র।’

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.