তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কাল শপথ নিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দেখে নিন আমন্ত্রিতের তালিকা

তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কাল শপথ নিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দেখে নিন আমন্ত্রিতের তালিকা
তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কাল শপথ নিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দেখে নিন আমন্ত্রিতের তালিকা

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ একুশের বিধানসভা নির্বাচনে জিতে, তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃতীয়বারের জন্য সরকার গঠন করতে চলেছেন তিনি। তাই মুখ্যমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে সেজে উঠছে নবান্ন। নতুন রঙের প্রলেপ পড়ছে নবান্নে। চারিদিকে তুমুল ব্যস্ততা।

আগামীকাল মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজভবনের টাউনহলে শপথ নেবেন তিনি। জানা গিয়েছে, বাকি বিধায়করা শপথ নেবেন বৃহস্পতি এবং শুক্রবারে। আগামীকাল ১০ টার পরে একটি ছোট অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হবে শপথগ্রহণ। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। থাকবেন প্রশান্ত কিশোর। থাকার কথা রয়েছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের।

জানা গিয়েছে, করোনাবিধি মেনে, কাল রাজভবনের টাউনহলে এই শপথ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হবে। আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ক্রিকেটার গৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টচার্য, বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু এবং বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে। আমন্ত্রিতদের তালিকায় রয়েছেন মনোজ টিজ্ঞা, অধীর রঞ্জন চৌধুরী, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, দেব, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, সুব্রত মুখোপাধ্যায়ও।

জানা গিয়েছে, সকাল ১০ তা ৪৫ মিনিটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শপথবাক্য পাঠ করাবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বাংলার ২৯৪ টি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে ২৯২ টি কেন্দ্রের ফল প্রকাশ হয়েছে। তার মধ্যে তৃণমূল জিতেছে ২১৩ টি আসনে। যদিও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সামান্য কিছু ভোটে নন্দীগ্রামে হেরে গিয়েছেন। ফলে মুখ্যমন্ত্রী পদের জন্য তাঁকে অন্য একটি আসন থেকে জিতে আসতে হবে। ইতিমধ্যেই সোমবার রাতে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন মমতা। সেখানে নিজের পদত্যাগ পত্র তুলে দিয়েছেন।

শপথ নেওয়ার পরে, তাঁকে নবান্নে গার্ড অফ অনার দেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয়বারের জন্য শপথ নেওয়ার পরে, প্রথমেই তিনি রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মিটিং করবেন বলে জানা গিয়েছে। আগামিকালই প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্তাদের নিয়ে বৈঠক করবেন মমতা। উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিকেলেও নিজের বাসভবনে মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, রাজ্য পুলিশের ডিজি এবং কলকাতার পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক করেছেন তিনি। কথা হয়েছে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা এবং কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে।

উল্লেখ্য, রাজ্যে ভোট পরবর্তী একাধিক রাজনৈতিক হিংসার ঘটনায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল। একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্যে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার কথাও বলেন ধনখড়। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও রাজ্যের হিংসার ঘটনায় তাঁকে ফোন করেছেন বলেও জানিয়েছেন। এমন অবস্থায় বিজেপি-সহ বিরোধী নেতারা মুখ্যমন্ত্রীর আগামীকালের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে থাকেন কিনা, সেটাই দেখার।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.