অন্য কোনও আসন থেকেও মনোনয়ন পত্র দাখিল করতে পারেন মমতা, মোদীর মন্তব্যে জল ঢালল তৃণমূল

অন্য কোনও আসন থেকেও মনোনয়ন পত্র দাখিল করতে পারেন মমতা, মোদীর মন্তব্যে জল ঢালল তৃণমূল
অন্য কোনও আসন থেকেও মনোনয়ন পত্র দাখিল করতে পারেন মমতা, মোদীর মন্তব্যে জল ঢালল তৃণমূল / ছবি সৌজন্যে- Screenshot From Facebook Video Posted By @narendramodi / CM Mamata Banerjee File Photo

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ এদিন উলুবেড়িয়ার সভা থেকে নজিরবিহীনভাবে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আজ উলুবেড়িয়ার নির্বাচনী জনসভায় মোদী মন্তব্য করেন যে, ‘নন্দীগ্রাম হারের ইঙ্গিত দিচ্ছে। অন্য কোনও আসন থেকেও মনোনয়ন পত্র দাখিল করতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমন জল্পনা রয়েছে। আপনিই বলুন দিদি, এই জল্পনা সত্যি কিনা।’

আবার এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, ‘নন্দীগ্রামের নব্বই শতাংশ মানুষই আমাকে ভোট দিচ্ছেন। খুব সহজেই জিতব। ‘ এর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উলুবেড়িয়ার জনসভায় করা মন্তব্যের জবাব দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। শাসকদল জানিয়েছে যে, অন্য কোনও আসন থেকে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়াই করার কোনও প্রশ্নই নেই। খুব সহজেই নন্দীগ্রামে জিতবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন উলুবেড়িয়ার নির্বাচনী জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন যে, এই বিধানসভা নির্বাচন শুধুমাত্র বাংলায় ক্ষমতা বদলের নির্বাচন নয়, বাংলায় আসল পরিবর্তন আনার নির্বাচন। এর পাশাপাশি তিনি এও বলেন যে, আগামী ২ মে বাংলায় ডবল ইঞ্জিনের সরকার হবে। ভাইপোর উইন্ডো বন্ধ হবে।

উল্লেখ্য, আজ বাংলায় দ্বিতীয় দফার ভোট অনুষ্ঠিত হয়। রাজ্যের চার জেলায়, ৩০ আসনে। এর মধ্যেই রাজ্যে নির্বাচনী প্রচারে আসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ নন্দীগ্রামে বিক্ষিপ্ত হিংসার ঘটনা ঘটেছে। সেই প্রসঙ্গ টেনে মোদী বলেন যে, ‘আজ নন্দীগ্রামের মানুষ বাংলার মানুষের স্বপ্নপূরণ করে দিয়েছেন। বাংলার মানুষ আর অপেক্ষা করতে রাজি নয়। নিজেদের ভবিষ্যত বাঁচানোর জন্য বাংলার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন। নন্দীগ্রামে যা হয়েছে তা দিদির হারের ইঙ্গিত দিচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন যে, ‘শেষ দফার মনোনয়ন দাখিল এখনও বাকী। গুঞ্জন রয়েছে অন্য কোনও আসন থেকে মনোনয়ন পত্র দখিল করতে চলেছেন দিদি। এর মধ্যে কতটা সত্যি আছে আপনিই বলুন দিদি।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে আক্রমণ করে তিনি বলেন যে, ‘দিদির সরকার মানে মা-বোনের উপরে অত্য়াচারী সরকার, দুর্নীতির সরকার। দিদি ঠিক করে দিয়েছেন, এখানে সরকারি সুবিধে পেতে গেলে কাটমানি দিতে হবে।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের করা ক্রমাগত ‘বহিরাগত’ আক্রমণ প্রসঙ্গে মোদী আজ বলেন যে, ‘দিদি, ভারত মাতার সন্তানকে আপনি বহিরাগত বলেন, টুরিস্ট বলেন? আর অনুপ্রবেশকারীদের আপন ভাবেন? আপনার কথা গোটা দেশ শুনছে। বিজেপি সেই দল যারা বাংলার সুসন্তান শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্য়ায়ের স্বপ্নকে বয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছে।বহিরাগত বলে সংবিধানের অপমান করবেন না। আপনাদের প্রশ্ন করি, এই ১০ বছরে দিদি তাঁর কাজের হিসেব দিয়েছেন কি? দেওয়া উচিত নয়? আসল কথা হল, হিসেব দেওয়ার মতো কোনও কিছুই ওঁর কাছে নেই।’

মোদী উলুবেড়িয়ার জনসভা থেকে বলেন যে, ‘উলুবেড়িয়ার মানুষ জানতে চান যে, আমপান ত্রাণের টাকা কোথায় গেল?’ মমতার পাশাপাশি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে মোদী এই একই প্রসঙ্গে বলেন যে, ‘দিদি জবাব দিতে না পারেন তো ভাইপো দিন! বাংলার মানুষের ক্ষোভ থেকে দিদির বাঁচার কোনও উপায় নেই। দিদি শুনে নিন, বাংলার মানুষ এই ভোটে আপনাকে শাস্তি দেবে।’

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.