অনেক চাপ দেওয়ার পরে তিনি শেষ পর্যন্ত আমাদের কথা শুনেছেন! মোদির বিনামূল্যে ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে টুইট মমতার

অনেক চাপ দেওয়ার পরে তিনি শেষ পর্যন্ত আমাদের কথা শুনেছেন! মোদির বিনামূল্যে ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে টুইট মমতার
অনেক চাপ দেওয়ার পরে তিনি শেষ পর্যন্ত আমাদের কথা শুনেছেন! মোদির বিনামূল্যে ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে টুইট মমতার

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবির কাছে চাপ স্বীকার করেই শেষ পর্যন্ত বিনামূল্যে সকল দেশবাসীকে প্রতিষেধক দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সোমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দেশবাসীকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার ঘোষণার পরে টুইট করে এমনটাই জানালেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার বিকেল পাঁচটায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান, এবার থেকে টিকাকরণের জন্য রাজ্য সরকারগুলিকে আর কোনও অর্থ রাজ্য সরকারগুলিকে ব্যয় করতে হবে না। ২১ জুন থেকে ১৮ বছরের ঊর্ধ্ব সব নাগরিককে টিকা দেবে ভারত সরকার।

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর এই টুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি লেখেন, “সবাইকে বিনামূল্যে প্রতিশোধক সরবরাহ করা আমাদের দীর্ঘস্থায়ী দাবি। ২০২১-এর ফেব্রুয়ারি এবং এরপরেও একাধিকবার আমি প্রধানমন্ত্রীকে এটা জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলাম। তিনি চার মাস সময় নিয়েছেন। অনেক চাপ দেওয়ার পরে তিনি শেষ পর্যন্ত আমাদের কথা শুনেছেন। আমরা যা বলেছিলাম তা কার্যকর করলেন”।

টিকার অভাব নিয়ে বিগত বেশ কয়েকদিন ধরে কেন্দ্রকে তোপ দাগছিল রাজ্যগুলি। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যগুলির ঘাড়েই টিকাকরণ নিয়ে দায় চাপানোর চেষ্টা করবে প্রধানমন্ত্রী এমনটাই অভিযোগ উঠেছিল। এই প্রসঙ্গে এদিন নমো বলেন, “বিভিন্ন রাজ্যের থেকে বিভিন্ন রকমের দাবি করা হচ্ছিল টিকাকরণ নিয়ে। কেন লকডাউনের ক্ষমতা রাজ্যের হাতে দেওয়া হচ্ছে না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছিল।” মোদী বুঝিয়ে দেন, রাজ্যগুলির দাবির ভিত্তিতেই কেন্দ্র ধীরে ধীরে টিকাকরণের দায়িত্ব ছেড়ে দেয় রাজ্যগুলির হাতে। এছাড়া মোদী জানান, প্রতিটি ডোজের যা নির্ধারিত দাম থাকবে, তাতে সর্বাধিক ১৫০ টাকা সার্ভিস চার্জ বসানো যাবে।