স্বামীর সামনেই প্রেমিকের বাইক চড়ে পালাল বউ! অপমানে শ্বশুরবাড়িতেই আত্মঘাতী যুবক

স্বামীর সামনেই প্রেমিকের বাইক চড়ে পালাল বউ! অপমানে শ্বশুরবাড়িতেই আত্মঘাতী যুবক
স্বামীর সামনেই প্রেমিকের বাইক চড়ে পালাল বউ! অপমানে শ্বশুরবাড়িতেই আত্মঘাতী যুবক

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ভালোবেসেই একসঙ্গে জীবনটা শুরু করেছিলেন দু’জনে। কিন্তু সেই সম্পর্কই ধীরে ধীরে খারাপ হতে শুরু করে। বিয়ের পর অন্য যুবতীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন স্ত্রী। এতোটাই বেপরোয়া হয়ে গিয়েছিলেন যে, প্রেমিকের সঙ্গে কাটানো অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি স্বামীকে দেখাতেও বিন্দুমাত্র দ্বিধাবোধ করেননি। লজ্জায়, অপমানে শ্বশুরবাড়ি গিয়ে আত্মহত্যা করলেন স্বামী! মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কালনায়।

জানা গিয়েছে, মৃতের নাম সুদেব দে। বাড়ি, কালনার বাঘনা পাড়ায় খাসপুর গ্রামে। প্রায় দু’দশক আগে গ্রামেরই মেয়ে টুম্পাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন তিনি। ওই দম্পতির এক কন্যাসন্তান রয়েছে। ওই দম্পতির এক কন্যাসন্তানও রয়েছে। কর্মসূত্রে চেন্নাইতে থাকতেন মৃত সুদেব দে। স্বামীর না থাকার সুযোগে অন্য এক যুবকের সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন টুম্পা, এমনটাই অভিযোগ পরিবারের। এমনকি প্রেমিকের সঙ্গে দু’বার পালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি! কোনওমতে বুঝিয়ে-সুঝিয়ে স্ত্রীকে ফিরিয়ে এনেছিলেন সুদেব। আবারও সংসার করছিলেন।

কিন্তু ফিরে এলেও, প্রেমিককে ভুলতে পারেননি। শুধু তাই নয়, প্রেমিকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি সুদেবকে দেখান তাঁর স্ত্রী। এরপর সকলের সামনে গত সোমবার ওই যুবকের বাইকে চেপে ফের ঘর ছাড়েন। আর তাতেই লজ্জায়, অপমানে আত্মঘাতী হন সুদেব।

গত সোমবার রাতেই গতকাল, সোমবার রাতে শ্বশুরবাড়িতে সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। সুইসাইড নোটে লিখে যান, ‘আমার মৃত্যুর এই বাড়ি বা অন্য় কেউ দায়ী নয়। আমি স্বেচ্ছায় লজ্জায় অপমানে এই পথ বেছে নিতে বাধ্য হলাম’। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিস। এলাকায় শোকের ছায়া।