রবিবার, ০২ অক্টোবর, ২০২২

বালির ২ গৃহবধূর খোঁজ পাচ্ছেন না রাজমিস্ত্রীরা! কোথায় গেলেন অনন্যা ও রিয়া?

০১:৪৪ পিএম, জানুয়ারি ১৩, ২০২২

বালির ২ গৃহবধূর খোঁজ পাচ্ছেন না রাজমিস্ত্রীরা! কোথায় গেলেন অনন্যা ও রিয়া?

টানা বেশ কয়েকদিন হাজতবাসের পর অবশেষে মিলেছে মুক্তি। তবে জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর আর বালির ২ গৃহবধূর খোঁজ পাচ্ছেন না রাজমিস্ত্রী শেখর রায় এবং শুভজিৎ দাস। কোনওভাবেই তাঁরা নিজেদের ভালোবাসার মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না। তাই যে কোনও উপায়ে গৃহবধূদের খোঁজ পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন দুই রাজমিস্ত্রী।

এদিকে প্রেমিকদের হাজতবাসের পর থেকেই আর শ্বশুরবাড়িতে থাকছেন না বালির ওই দুই গৃহবধূ, অনন্যা আর রিয়া। তাঁদের ফোনও এখন পুলিশি হেফাজতে। ফলে কিছুতেই প্রেমিকাদের সন্ধান পাচ্ছেন না শেখর ও শুভজিৎ। জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পরই তাঁরা জানিয়েছিলেন, ‘রাজমিস্ত্রি বলে কি আমরা মানুষ নয়? আমাদের মন নেই? আমরাও তো ভালোবাসতে পারি। আমরা আইন মেনে আমাদের প্রেমিকাদের বিয়ে করে সংসার করতে চাই।’ তাই মনের মানুষেরা বর্তমানে কোথায় রয়েছেন তা জানতে তাই অনন্যা-রিয়ার পরিচিতদের ফোন করে চলেছেন দুই রাজমিস্ত্রী। বহুদিন প্রেমিকাদের সঙ্গে দেখা হয়নি। এবার দেখা করার জন্য একপ্রকার মরিয়া হয়ে উঠেছেন শেখর-শুভজিৎ। কোথায় গেলে মিলবে অনন্যা ও রিয়ার সন্ধান, তা-ই খোঁজ চালাচ্ছেন রাজমিস্ত্রীরা।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ ডিসেম্বর শ্রীরামপুরে শীতের পোশাক কিনতে যাওয়ার নাম করে শেখর ও শুভজিতের সঙ্গে পালিয়ে যান বালির দুই গৃহবধূ, অনন্যা ও রিয়া। সঙ্গে ছিল রিয়ার সাত বছরের ছেলে আয়ুষও। তাঁরা প্রথমে ওঠেন রাজমিস্ত্রীদের সামশেরগঞ্জেরবাড়িতে। এক রাত সেখানে কাটিয়ে এরপর মুম্বইয়ের উদ্দেশে রওনা দেন রাজমিস্ত্রী ও গৃহবধূরা। পরে অবশ্য পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন চার জন। গৃহবধূ দুজনকে ছেড়ে হলেও অপহরণের অভিযোগে হাজতবাসে কাটাতে হয় শেখর ও শুভজিৎকে। তবে পরে অনন্যা ও রিয়ার জবানের ভিত্তিতে ছাড়া পান দুই রাজমিস্ত্রী। তারপরই প্রেমিকাদের খোঁজ মরিয়া হয়ে উঠেছেন দু'জনে।