শেষ মুহূর্তে মাস্টার স্ট্রোক! বাংলায় প্রার্থী দেওয়া নিয়ে বড় ঘোষণা মিমের

রাজ্যে এলেন মিম সুপ্রিমো, প্রথম দফার ভোট থেকেই উঠতে পারে প্রচারের ঝড়
রাজ্যে এলেন মিম সুপ্রিমো, প্রথম দফার ভোট থেকেই উঠতে পারে প্রচারের ঝড়/Image Source: Screengrab from Facebook Video Posted By @PartyAIMIM

শেষ মুহূর্তে মারন কামর দিতে চাইছে আসাদউদ্দিন ওয়েইসির অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল-মুসলমিন (এআইএমআইএম)। মুর্শিদাবাদের কয়েকটি আসনে প্রার্থী দিতে চাইছে তান্রা। সুত্রের খবর এমনটাই। জানা গেছে, প্রথম দফার যেদিন ভোট অর্থাৎ ২৭ মার্চ রাজ্যে আসছেন আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। প্রসঙ্গত, সেইদিনই রাজ্যের চতুর্থ দফা ভোটের মনোনয়নের শেষদিন। এর থেকে স্পষ্ট যে প্রথম চার দফার নির্বাচনে কোথাও প্রার্থী থাকছেনা মিমের।

একটা সময় যে আসাদউদ্দিন ওয়েইসিকে বাংলার নির্বাচনে বড় ফ্যাক্টর বলে মনে করা হচ্ছিল, সেই ওয়েইসি নির্বাচনী আবহে রাজ্যে পা পর্যন্ত রাখেননি। যার ফলস্বরূপ রীতিমতো দৈন্যদশায় কাটাতে হচ্ছে তাঁর দলকে। মিমের রাজ্য নেতাদের অনেকেই দল ছেড়ছেন। যারা আছেন, তাঁরাও জানেন না আদৌ মিম এবারের ভোটে লড়বে কিনা। আর লড়লে কোন জেলায় কোন আসনে লড়বে। আব্বাস সিদ্দিকির সঙ্গে জোট ভাঙার পরই বাংলার ভোটচিত্র থেকে হারিয়ে গিয়েছে মিম। জেলায় জেলায় মিমের নেতারা হয় আব্বাসের দলে নয় তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

প্রথমে আইএসএফের সঙ্গে মিম জোট বেঁধে লড়বে জানালেও পরে সেই জোট ভেঙে যায়। এরপর থেকে কার্যত দেখাই যায়নি মিমকে। কিন্তু ভোটের মুখে ফের সক্রিয় তাঁরা। আসাদউদ্দিন ওয়েইসি জানালেন, তাঁর দল বাংলার কিছু আসনে লড়বে। কোন জেলায়, ক’টি আসনে সেটা ঘোষণা করা হবে আগামী ২৭ মার্চ।

তবে সুত্রের খবর, এখন মূলত মুর্শিদাবাদের ১৩টি আসনেই নজর রয়েছে মিম সুপ্রিমোর। বাংলার আর কোনও আসনে প্রার্থী দেওয়ার ইচ্ছে আপাতত নেই ওয়েইসির। উল্লেখ্য, মুর্শিদাবাদে কোনও আসনেই লড়ছে না আব্বাস সিদ্দিকির দল ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফন্ট।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.