অফিস কর্মীদের বেতন-সহ কাজের সময় ও পিএফ-এ ব্যাপক পরিবর্তন আনতে চলেছে কেন্দ্রের মোদী সরকার

অফিস কর্মীদের বেতন-সহ কাজের সময় ও পিএফ-এ ব্যাপক পরিবর্তন আনতে চলেছে কেন্দ্রের মোদী সরকার
অফিস কর্মীদের বেতন-সহ কাজের সময় ও পিএফ-এ ব্যাপক পরিবর্তন আনতে চলেছে কেন্দ্রের মোদী সরকার / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ অফিসে কাজের সময়, বেতন, পিএফ, গ্র্যাচুইটি ইত্যাদিতে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে চলেছে কেন্দ্র সরকার। এই সংক্রান্ত বিলে আগামী ১ এপ্রিল ২০২১ থেকেই এই পরিবর্তন আসতে পারে।

এপ্রিল মাস থেকেই কর্মীদের হাতে আসা বেতনের পরিমাণও কমে যেতে পারে। তবে, সেক্ষেত্রে বাড়বে পিএফ এবং গ্র্যাচুইটি জমার পরিমাণ। এই নতুন নিয়মে এই ভাতার পরিমাণ বেসিক পে-এর সবচেয়ে বেশি ৫০ শতাংশ হবে। উল্লেখ্য, স্বাধীন ভারতের ৭৩ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম শ্রম আইন পরিবর্তন করা হচ্ছে। কেন্দ্র সরকারের দাবি, এতে কোম্পানি এবং কর্মী উভয় পক্ষেরই লাভ হবে।

কেন্দ্রের নতুন খসড়া নিয়মে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে যে, মোট বেতনের ৫০ শতাংশ বা তারও বেশি হবে বেসিক বেতন। পিএফ-এর টাকার পরিমাণ বাড়বে। কর্মীর পিএফ নির্ভর করবে বেসিক পে-এর উপরই। তবে, এতে হাতে পাওয়া টাকার পরিমাণ কমবে অনেকটাই।

অন্যদিকে বাড়বে পিএফ এবং গ্যাচুইটির পরিমাণ। এর ফলে অবসরের পরের জীবন অনেকটাই সুরক্ষিত হবে বলে মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি, অবসর নেওয়ার পরে পিএফ ও গ্র্যাচুইটি বাড়ার ফলে কর্মীদের জীবন আরও সহজতর হবে। বেতনের কাঠামো এমনভাবেই পরিবর্তন করা হবে, যাতে কর্মীদের ক্ষতি সবথেকে কম হয়। এছাড়া পিএফ ও গ্র্যাচুইটি বাড়ার ফলে কোম্পানিগুলিরও কস্ট টু কোম্পানি বাড়বে। তার কারণ, তাদেরকেও কর্মীদের জন্য সমপরিমাণ টাকা পিএফ ও গ্র্যাচুইটিতে জমা করতে হবে।

নতুন খসড়া বিধিতে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে যে, অফিসে কাজের সবচেয়ে বেশি সময় বাড়িয়ে ১২ ঘণ্টা করতে হবে। এরপর ১৫ থেকে ৩০ মিনিট বেশি কাজ করলেই, তাঁকে ওভারটাইম হিসেবে ধরা হবে। ১৫ মিনিটের বেশি কাজ করলেই তা আধ ঘণ্টার হিসেবে পড়বে। বর্তমানের নিয়মে অবশ্য ৩০ মিনিট বাড়তি কাজ করলেও, তাঁকে ওভারটাইম ধরা হয় না। এছাড়াও, খসড়া বিলে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে যে, টানা কোনও কর্মীকে ৫ ঘণ্টার বেশি কাজ করানো যাবে না। প্রতি ৫ ঘণ্টা পর আধঘণ্টা করে কর্মীদের বিশ্রামের সুযোগ দিতে হবে কোম্পানিকে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.