রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ সামান্য ঊর্ধ্বমুখী! কমল দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা

রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ সামান্য ঊর্ধ্বমুখী! কমল দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা
রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ সামান্য ঊর্ধ্বমুখী! কমল দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ রাজ্যে কড়া বিধিনিষেধ জারির সুফল মিলছে। ক্রমশ সুস্থতার পথে এগিয়ে চলেছে বাংলা। স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান থেকেই তা স্পষ্ট। ভোটের আবহে এপ্রিল-মে মাসে ঝড়ের গতিতে রাজ্যে বাড়ছিল করোনার সংক্রমণ। তারপর ধীরে ধীরে তা কমতে শুরু করে। এখন রাজ্যে দৈনিক করোনার সংক্রমণ অনেকটাই কম। তবে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ফের খানিকটা বাড়ল। তবে, গতকালের থেকে রাজ্যে দৈনিক মৃতের সংখ্যাও সামান্য হলেও কম।

স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯১ জন। আগের দিন রাজ্যে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮৩১ জন। এদিনও দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে প্রথম স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগণা জেলা। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৯২ জন। এদিন সংক্রমণের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বাঁকুড়া। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮৯ জন। তৃতীয় স্থানে ফের উঠে এসেছে রাজ্যের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র দার্জিলিং। এই জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮৭ জন। আর শহর কলকাতা রয়েছে চতুর্থ স্থানে। একদিনে সেখানে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৭৬ জন। বাকি সব জেলা থেকেই কম-বেশি আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। ফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৫ লক্ষ ১৫ হাজার ৫৯৯ জন।

অন্যদিকে, একদিনে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ১২ জন। এদিন রাজ্যের মধ্যে কলকাতা, পূর্ব মেদিনীপুর, জলপাইগুড়ি, নদিয়ায় ২ জন করে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৭ হাজার ৯৭০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মারণ করোনাকে পরাস্ত করে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১ হাজার ৮৯ জন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ১৪ লক্ষ ৮৩ হাজার ৯৯২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থতার হার ৯৭.৯১ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৫৫ হাজার ২৫৩ জনের।

এদিকে গতকালই বাড়ানো হয়েছে রাজ্যে বিধিনিষেধের মেয়াদ। রাজ্যে বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়িয়ে ৩০ জুলাই পর্যন্ত করা হয়েছে। এই দফায় সপ্তাহের ৫ দিন ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে মেট্রো চলবে জানানো হলেও, বন্ধ থাকছে লোকাল ট্রেন। কাজেই এমাসেও চলছে না লোকাল ট্রেন। তবে, স্টাফ স্পেশাল ট্রেন যেমন চলছে, তেমনই চলবে। ব্যাঙ্ক খোলার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে এই দফায়। সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ৩ টে পর্যন্ত খোলা থাকবে ব্যাঙ্ক। নবান্নের তরফে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়-সহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধই থাকবে।