হাঁটুতে ব্যথা নিয়েও মেয়ের জন্য মা যা করলেন, তা দেখে স্তম্ভিত নেটিজেনরা! দেখুন আবেগঘন পোস্টটি…

হাঁটুতে ব্যথা নিয়েও মেয়ের জন্য মা যা করলেন, তা দেখে স্তম্ভিত নেটিজেনরা! দেখুন আবেগঘন পোস্টটি... / Image Source- Screengrab from Video Tweeted By @surekhapillai
হাঁটুতে ব্যথা নিয়েও মেয়ের জন্য মা যা করলেন, তা দেখে স্তম্ভিত নেটিজেনরা! দেখুন আবেগঘন পোস্টটি... / Image Source- Screengrab from Video Tweeted By @surekhapillai

মায়ের হাঁটুতে ব্যথা। ঠিকমতো বসতে বা হাঁটতে পারেন না। খুব বেশিক্ষণ বসে থাকলে বাড়ে ব্যথা। তাও নিজের মেয়ের জন্য তিনি নিজের হাতে তৈরি করলেন রজনীগন্ধার মালা বা গজরা। অবশ্য আসল ফুল দিয়ে নয়, টিস্যু পেপার দিয়ে। যা দেখতে হুবহু আসল মালার মতোই৷ সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনই এক পোস্ট। যা দেখে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছেন নেটিজেনরাও।

ছবিটি টুইটারে পোস্ট করেন সুরেখা নামে একজন ইউজার। সেখানে তিনি মাথায় ফুলের মালাটি জড়িয়ে রয়েছেন। ফুলের মালাটিকে নিজের চুলের সাজ বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। সঙ্গে এও বলেছেন এটি আসল ফুলের মালা নয়। বরং টিস্যু পেপার দিয়ে বানানো। যা তাঁর মা নিজের হাতে বানিয়ে দিয়েছেন।

পাশাপাশি তিনি এও উল্লেখ করেন যে তাঁর মা নিজের সব ব্যথা-বেদনা, গাঁটের সমস্যা ভুলে ধৈর্য্য ধরে এই মালা বানিয়েছেন। তাই যে অন্যান্য কোনও ফুলের মালার চেয়ে এতে অনেক বেশি সুগন্ধ রয়েছে। এমনকি মালাটি যে কোনও পোশাকের সঙ্গেই পরা যাবে।

দেখুন পোস্টটি-

টুইটারে পোস্ট করা মাত্রই রীতিমতো ভাইরাল হয়ে পড়ে সেটি। মালাটি যে আসল ফুলের নয় তা দেখে বেশ চমকেই গিয়েছেন নেটিজেনরা। ইতিমধ্যেই পোস্টটিতে ১৬০০-র বেশি লাইকও পড়ে গিয়েছে। নানা আবেগঘন মন্তব্যে সেটি ভরিয়ে তুলেছেন নেটদুনিয়ার মানুষ।

ডক্টর দীপা শর্মা বলে একজন মন্তব্য করেন, “এই গজরা দেখে খুবই সতেজ মনে হচ্ছে। যদি সুরেখা আলাদা করে বলে না দিতেন এটা টিস্যু পেপার দিয়ে তৈরি, তাহলে কারও বোঝার সাধ্য ছিল না যে এটা সত্যি নয়!” আবার আরেকজন মন্তব্য করেছেন, “আপনার মায়ের হাতে জাদু রয়েছে। যে নিজের সৃজনশৈলীর মাধ্যমে যে কোনও নিষ্প্রাণ বস্তুতে তিনি প্রাণ দিতে পারেন।”

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.