করোনা আবহে কোনও বেতন না নিয়ে পুরোটাই দান করেছেন মুকেশ আম্বানি! কত টাকার প্যাকেজ জানেন?

করোনা আবহে কোনও বেতন না নিয়ে পুরোটাই দান করেছেন মুকেশ আম্বানি! কত টাকার প্যাকেজ জানেন?
করোনা আবহে কোনও বেতন না নিয়ে পুরোটাই দান করেছেন মুকেশ আম্বানি! কত টাকার প্যাকেজ জানেন?

করোনা আবহে দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসেছেন বহু প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব। নিজেদের সাধ্যমতো দেশের মানুষের সাহায্যে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তাঁরা৷ সেরকমই একজন হলেন দেশের অন্যতম প্রভাবশালী শিল্পপতি মুকেশ আম্বানি। করোনাকালীন পরিস্থিতিতে বিগত আর্থিক বর্ষে কোনও বেতন নেননি তিনি। বরং করোনা মোকাবিলায় পুরোটাই দান করে দিয়েছেন।

দেশের অন্যতম জনপ্রিয় টেলিকম সংস্থা রিলায়েন্সের কর্ণধার মুকেশ আম্বানি। যিনি দেশ তথা এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি হিসেবেই পরিচিত৷ ২০০৯ সাল থেকে তাঁর বেতনের মোট বার্ষিক প্যাকেজ ১৫ কোটি টাকা। বিগত ১২ বছর ধরে একই পরিমাণ টাকা নিয়ে আসছেন তিনি। এর আগে ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে নিজের বেতনের পুরোটাই নিয়েছিলেন তিনি৷ তবে গত বছরের বেতন না নিয়ে পুরো প্যাকেজই করোনা মোকাবিলায় উৎসর্গ করলেন। সম্প্রতি সংস্থার ২০২০-২১ অর্থবর্ষের বার্ষিক রিপোর্টে সামনে এসেছে এই তথ্য।

করোনা আবহে কোনও বেতন না নিয়ে পুরোটাই দান করেছেন মুকেশ আম্বানি! কত টাকার প্যাকেজ জানেন?
করোনা আবহে কোনও বেতন না নিয়ে পুরোটাই দান করেছেন মুকেশ আম্বানি! কত টাকার প্যাকেজ জানেন?

উল্লেখ্য, গত বছরই সংস্থায় তরফে বলা হয়েছিল, করোনার প্রভাবে দেশে বিপুল পরিমাণ সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষতি হয়েছে। এই অবস্থায় দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতেই এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রিলায়েন্স কর্ণধার তথা ডাইরেক্টর আম্বানি৷ নিজের বিগত বছরের বেতনের পুরোটাই স্বেচ্ছায় দান করে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

করোনা আবহে কোনও বেতন না নিয়ে পুরোটাই দান করেছেন মুকেশ আম্বানি! কত টাকার প্যাকেজ জানেন?
করোনা আবহে কোনও বেতন না নিয়ে পুরোটাই দান করেছেন মুকেশ আম্বানি! কত টাকার প্যাকেজ জানেন?

তবে বেতন দান করার পরেও গত এক সপ্তাহে বিপুল পরিমাণে বেড়েছে মুকেশ আম্বানির সম্পত্তি। ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৫২,৬২১ কোটি টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে সে পরিমাণ। ফলে বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তিদের দৌড়ে আরও একধাপ এগোলেন তিনি। সেই তালিকায় বর্তমানে ১২ নম্বর স্থানে রয়েছে আম্বানির নাম৷ এখানে উল্লেখ্য, বিগত ১২ বছর ধরে নিজের বেতনের পরিমাণ অপরিবর্তিত রেখে অন্যতম এক নজিরও গড়ে ফেলেছেন এশিয়ার ধনীতম এই ব্যক্তি।