দলত্যাগীদের ঘরে ফেরাতে অভিষেকের স্মরণাপন্ন মুকুল রায়

দলত্যাগীদের ঘরে ফেরাতে অভিষেকের স্মরণাপন্ন মুকুল রায়
দলত্যাগীদের ঘরে ফেরাতে অভিষেকের স্মরণাপন্ন মুকুল রায়

গত লোক সভা নির্বাচনের আগে সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া মুকুল রায়ের হাত ধরে দল ছেড়েছেন অনেকেই। একই পূর্ণরাবৃত্তি ঘটেছে বিধানসভা নির্বাচনের আগেও। দল ত্যাগী হয়েছেন অনেকে। কিন্তু বিজেপি তে গিয়ে কাজের সুযোগ না পেয়ে ফিরতে চাইছেন বেশির ভাগ তৃণমূল ত্যাগী নেতারা।

ইতিমধ্যেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে শনিবার পুনরায় প্রত্যাবর্তন করেছেন মুকুল ও তার পুত্র শুভ্রাংশু রায়। যদিও রাজ্যের মন্ত্রী ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আস্থা ভাজন সৈনিক ফিরহাদ হাকিম অনেক আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তার। ফিরহাদ এর কথায় বোধোদয় হলে তাদের ক্ষমা করা উচিত, তবে দল সিদ্ধান্ত নেবে।

অন্যদিকে বর্ষীয়ান তৃণমূল সাংসদও ইঙ্গিত দিয়েছিলেন একই ভাবে। এবার দলে ফিরেই বাকিদের তৃণমূল শিবিরে আনতে উদ্যত হলেন মুকুল রায়। শনিবার তাই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অফিসে হাজির হলেন মুকুল রায়। এদিন বিকেল ৪ টে ১৫ মিনিট নাগাদ অভিষেকের ক্যামাকস্ট্রিটের অফিসে পৌঁছন মুকুল। সেখানে অভিষেকের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। যদিও সংবাদ মাধ্যমে এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চান নি মুকুল রায় বা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

অন্যদিকে, সূত্রের খবর, দলে ফিরে আসার পর একদা তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কম্যান্ড এখন কোন সাংগঠনিক দায়িত্ব পাবেন, কীভাবেই বা দলীয় সংগঠন বাড়াতে কাজে লাগানো হবে মুকুলকে, বৈঠকে তা নিয়েই মূলত আলোচনা চলে।