প্রথা ভেঙে, মুকুল রায়ের পিএসি চেয়ারম্যান পদের জন্য মনোনয়ন দাখিল! বিরোধিতায় গেরুয়া শিবির

প্রথা ভেঙে, মুকুল রায়ের পিএসি চেয়ারম্যান পদের জন্য মনোনয়ন দাখিল! বিরোধিতায় গেরুয়া শিবির
প্রথা ভেঙে, মুকুল রায়ের পিএসি চেয়ারম্যান পদের জন্য মনোনয়ন দাখিল! বিরোধিতায় গেরুয়া শিবির

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ বিধানসভায় পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির (PAC) পদের জন্য আজই মনোনয়ন জমা করেছেন বিজেপি থেকে সদ্য তৃণমূলে ফেরা কৃষ্ণনগর উত্তরের বিজেপি বিধায়ক মুকুল রায়। এই পদের জন্য মুকুল রায়ের মনোনয়ন জমা দেওয়ার পরই কার্যত বিরোধিতায় সরব হয়েছে রাজ্যের গেরুয়া শিবির।

নিয়ম মোতাবেক, কোনও বিরোধী দলের নেতাকেই এই পদের জন্য মনোনীত করা হয়ে থাকে। মিন্তু মুকুল রায় একুশের বিধানসভা ভোটে জিতে খাতায়কলমে বিজেপি বিধায়ক হলেও, এখন তিনি সর্বসমক্ষে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। যদিও এখনও তিনি বিধায়কপদ ছাড়েননি। কিন্তু এরপরই বিতর্ক দানা বেধেছে। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, কীভাবে এই পদের জন্য মুকুল রায় মনোনীত হতে পারেন? তবে, ওয়াকিবহাল মহলের মত, প্রথার ব্যতিক্রম হতেই পারে।

উল্লেখ্য, PAC-র বা পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটি বিধানসভার রাজ্য সরকারের খরচ-খরচার সংক্রান্ত হিসেবের উপর নজর রাখে। এই কাজে যাতে স্বচ্ছতা বজায় থাকে, তাই সাধারণত এই কমিটির চেয়ারম্যান করা হয় বিরোধী দলের বিধায়কদের। এটাই রীতি। তবে, মুকুল রায় বিরোধী দলের বিধায়ক হলেও, এখন তিনি তৃনমূলে যোগ দিয়েছেন, আবার বিধায়ক পদও ছাড়েননি। সেই জন্যই তাঁর এই পদের জন্য মনোনয়ন জমা পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে বিজেপি চাইছে না, কোনোভাবেই দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা প্রথা লঙ্ঘন হোক। এখানেই শেষ নয়, রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে এই প্রসঙ্গে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, বিধানসভায় পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান পদে মুকুল রায়কে আনা হলে, তাদের বিধানসভার প্রতিটি কমিটি বয়কট করার ভাবনাও রয়েছে। পাশাপাশি বিজেপির পক্ষ থেকে এও দাবি করা হয়েছে, মুকুল রায়ের বিধায়ক থাকারই অধিকার নেই। তার পরেও তিনি কীভাবে পিএসির চেয়ারম্যান হওয়ার মনোনয়ন দাখিল করেন? প্রশ্ন গেরুয়া শিবিরের।

পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির জন্য মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল বুধবার। এই কমিটির মোট সদস্য সংখ্যা ২০। এর মধ্যে আজ শাসকদলের পক্ষ থেকে ১৪ জনের নাম দেওয়া হয়। আর বিরোধীদের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে ৬ জনের নাম। সূত্রের খবর, গেরুয়া শিবিরের তরফে যে ৬ জন বিধায়কের নাম জমা পড়েছে, তাঁরা হলেন, বিজেপির তরফে অশোক লাহিড়ি, মনোজ টিগ্গা, শুভেন্দু অধিকারী, বঙ্কিম ঘোষ, পবন সিং, নির্মল ধারার নাম জমা পড়েছে। আবার এও জানা গিয়েছে যে, শাসকদলের পক্ষ থেকে এদিন দুপুরে পিএসির চেয়ারম্যান পদের জন্য মনোনয়ন দাখিলের চিঠি পাঠিয়েছেন মুকুল রায়।

এরপরই এর বিরোধিতা শুরু করে গেরুয়া শিবির। ইতিমধ্যেই মুকুলকে চেয়ারম্যান করার প্রস্তাবের বিরোধিতা করে বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে একটি চিঠি দিয়েছে রাজ্য বিজেপি। বিরোধী পক্ষের দাবি, যদি পিএসি-র চেয়ারম্যানের পদ বিরোধীদের না দেওয়া হয়, তবে তারা কোনও কমিটিই নেবে না। গেরুয়া শিবির চাইছে, অশোক লাহিড়ীকে এই পিএসি কমিটির চেয়ারম্যান করা হোক। মুকুল রায় এখনও খাতায়কলমে বিজেপির বিধায়ক। কিন্তু তিনি কিছুদিন আগেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। তাই তাঁর বিধায়ক পদ খারিজের দাবি নিয়ে, দ্রুত স্পিকারকে চিঠি দিতে চলেছে গেরুয়া শিবির। তাই তাঁর পিএসির চেয়ারম্যান হওয়া নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে রাজ্যের গেরুয়া শিবির।

সূত্রের খবর, বিধানসভার ৪০ টি কমিটির মধ্যে ১০ টি কমিটি বিজেপির হাতে তুলে দেওয়া হতে পারে বলে খবর। বিজেপি যদিও কমপক্ষে ১৪ টি কমিটির দাবি জানিয়েছে।