প্রশংসনীয় পদক্ষেপ! নিজের দামী গাড়ি বেচে করোনা রোগীদের বিনামূল্যে অক্সিজেন যোগাচ্ছেন এই ব্যক্তি

প্রশংসনীয় পদক্ষেপ! নিজের দামী গাড়ি বেচে করোনা রোগীদের বিনামূল্যে অক্সিজেন যোগাচ্ছেন এই ব্যক্তি
প্রশংসনীয় পদক্ষেপ! নিজের দামী গাড়ি বেচে করোনা রোগীদের বিনামূল্যে অক্সিজেন যোগাচ্ছেন এই ব্যক্তি

করোনা আতঙ্কে কার্যত জেরবার গোটা দেশ। দিনের পর দিন চড়ছে করোনার গ্রাফ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হারও। এরই মধ্যে সারা দেশে ঘাটতি দেখা দিচ্ছে হাসপাতালের বেড বা ভ্যাকসিনের। অক্সিজেন বা ভেন্টিলেটরও অমিল। এদিকে করোনা আক্রান্তের সংখ্যার কমতি নেই। এই অবস্থায় পরিস্থিতি সামলাতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকেরাও। করোনা রোগীদের চিকিৎসায় কোনও রকম ত্রুটি না রাখলেও উপযুক্ত বিকল্পের অভাবে হাল ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন তাঁরাও।

এই অবস্থায় করোনা আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াতে নিজের সাধ্যমতো এগিয়ে এলেন মুম্বইয়ের এক ব্যক্তি। যিনি সম্প্রতি নিজের বিলাসবহুল গাড়ি বিক্রি করে সেই টাকায় কিনছেন অক্সিজেন সিলিন্ডার। আর সেই অক্সিজেন বিনামূল্যে পৌঁছে দিচ্ছেন সাহায্যপ্রার্থী করোনা রোগীদের কাছে। তিনি, শাহনাজ শেখ। মুম্বইয়ের মালাডের মালভানির বাসিন্দা। একটি অসরকারি সংস্থার কর্ণধার শাহনাজ শুধু আজ নয়, দেশে করোনার প্রথম ঢেউ আছড়ে পড়ার পর থেকেই করোনা আক্রান্তদের জন্য কাজ করে চলেছেন।

এর পিছনেও রয়েছে এক মর্মান্তিক কাহিনী। গতবছর অক্সিজেনের অভাবে মারা যান শাহনাজের এক বন্ধুর স্ত্রী। এই ঘটনা প্রবলভাবে নাড়া দেয় শাহনাজকে। তিনি ঠিক করেন অক্সিজেন আর ওষুধের অভাবে আর কাউকে চোখের সামনে মারা যেতে দেবেন না। তারপর থেকেই অক্সিজেন যোগানের কাজে পথে নেমে পড়েন তিনি। অক্সিজেন কেনার জন্য নিজের ২২ লাখ টাকায় কেনা এসইউভি গাড়িটিও বেচে দেন। নিজের গাড়ি বিক্রির টাকায় আপাতত প্রায় ১৬০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারও জোগাড় করে ফেলেছেন শাহনাজ। করোনা আক্রান্তদের সেবায় অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন তিনি। এলাকায় তিনি হয়ে উঠেছেন ‘অক্সিজেন ম্যান’।

এই প্রসঙ্গে শাহনাজের বক্তব্য একটাই, গাড়ি ফের কেনা সম্ভব, কিন্তু এই মুহূর্তে মানুষের পাশে দাঁড়ানোটাই সবচেয়ে বেশি জরুরি। জরুরি যে অবশ্যই তা বেশ বুঝতে পারছেন শাহনাজও। দিনের পর দিন বাড়ছে অক্সিজেনের চাহিদা। আগে তাঁর কাছে নিয়মিত ৫০ টি ফোন এলেও এখন আসে প্রায় ৫০০ টি। কাউকেই ফেরান না শাহনাজ। প্রত্যেককেই সিলিন্ডার দিয়ে সহায়তা করেন। এভাবে এখনও অবধি প্রায় ৫ হাজার মানুষের সাহায্যেও পাশে দাঁড়িয়েছেন মুম্বইয়ের এই ‘অক্সিজেন ম্যান’। দেশের এই কঠিন পরিস্থিতিতে এই মানুষগুলিই যে আমাদের ভরসা…

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.