ফিরল স্টোনম্যানের স্মৃতি! ভবঘুরে যুবতীকে মাথা থেঁতলে খুন

ফিরল স্টোনম্যানের স্মৃতি! ভবঘুরে যুবতীকে মাথা থেঁতলে খুন
ফিরল স্টোনম্যানের স্মৃতি! ভবঘুরে যুবতীকে মাথা থেঁতলে খুন/ প্রতীকী ছবি

উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার ফালাকাটায় ফিরল স্টোনম্যান আতঙ্ক। এক ভবঘুরে মহিলাকে মাথায় পাথর দিয়ে আঘাত করে যেভাবে খুন করা হয়েছে তাতে কার্যত ফিরে আসছে স্টোনম্যান আতঙ্ক। যদি ইতিমধ্যে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই আমি ভবঘুরে মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে তদন্তকারী দল।

স্থানীয় সুত্রে খবর, ওই ভবঘুরে মহিলা পশ্চিম শালকুমার গ্রামের ফালাকাটা মাদারিহাট রাজ্য সড়কের ধারে একটি যাত্রী প্রতীক্ষালয়ের কাছেই থাকতেন। নিজেকে উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা বলে পরিচয় দিতেন ওই মহিলা। সারাদিন বিভিন্ন এলাকায় ভিক্ষে করে দিন কাটাতেন তিনি। কখনো এলাকায় কারো সঙ্গে বিবাদে জড়াতে দেখা যায়নি তাকে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ওই ভবঘুরে মহিলাকে ধর্ষণ করে পাথর দিয়ে থেঁতলে খুন করা হয়েছে। এমনকি ছোট শালকুমার গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের কিষান ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের জেলা সভাপতি প্রসেনজিৎ রায় জানাচ্ছেন, মহিলাকে ধর্ষণ করে পাথর দিয়ে মাথা থেঁতলে খুন করা হয়ে থাকতে পারে। তবে গোটা ঘটনার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না এলে পুলিশ এখনই নিশ্চিত হয়ে কিছু বলতে পারছেনা।

স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, ওই প্রতীক্ষালয় এর অনতিদূরেই রয়েছে মদের দোকান। এখানে রোজ রাতেই দুষ্কৃতী ও স্থানীয় যুবকদের মদের আসর বসে। এদিনও ঠিক সেই কারণেই মদের আসরের পর ওই মহিলাকে ধর্ষণ করার চেষ্টা হয়ে থাকতে পারে বলে জানাচ্ছেন স্থানীয়রা। এদিকে এ ঘটনায় আশরাফুল নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতকে ইতিমধ্যেই পাঁচদিনের পুলিসি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে তদন্তকারী দল। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান এই খুনের ঘটনায় একাধিক ব্যক্তির যোগ থাকতে পারে। ওই ধৃতকে জেরা করে খুনের ঘটনার কিনারা করতে চাইছে পুলিশ।