নারদ মামলায় মুখ্যমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীর হলফনামা জমা হাইকোর্টে! ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা

নারদ মামলায় মুখ্যমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীর হলফনামা জমা হাইকোর্টে! ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা
নারদ মামলায় মুখ্যমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীর হলফনামা জমা হাইকোর্টে! ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা

নারদ মামলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হলফনামা জমা পড়ল হাইকোর্টে। আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক ও রাজ্যের হলফনামাও গ্রহণ করল হাইকোর্ট। তিন পক্ষকেই ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা দিতে হবে জানিয়েছে আদালত। এছাড়াও সিবিআইকে আগামী ১০ দিনের মধ্যে হলফনামা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আগামী ১৫ জুলাই, মামলার পরবর্তী শুনানি হবে।

হাইকোর্টে নারদ মামলার শুনানি ছিল গতকাল। সেখানেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হলফনামার প্রসঙ্গ ওঠে। শুনানিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবী আবেদন জানিয়েছিলেন এই মামলায় তাঁরা হলফনামা জমা দিতে চান। সেই হলফনামা যাতে গ্রহণ করা হয়। অন্যদিকে তাঁর বিরোধিতা করেন সিবিআই-র পক্ষে আইনজীবী জেনারেল তুষার মেহতা। তিনি জানান, পরিকল্পিত ভাবেই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে হলফনামা জমা দেননি মুখ্যমন্ত্রী এবং আইনমন্ত্রী। কিন্তু বিচারপতি জানান, রাজ্য যদি হলফনামা পেশ করে তথ্য জানাতে চায়, তাহলে আপত্তির কিছু নেই।

উল্লেখ্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মলয় ঘটক ও রাজ্য সরকারের তরফ থেকে ৯ জুন এই মামলায় হলফনামা জমা দেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছিল। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ হয়ে যায়। পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ হলফনামা জমা নিতে অস্বীকার করেন। কারণ হিসেবে জানানো হয়েছিল, শুনানির মাঝে হলফনামা জমা নিলে মামলা ঘুরে যেতে পারে। এছাড়াও যেহেতু সিবিআই আইনজীবীর বক্তব্য শেষ, তাই আর নতুন করে হলফনামা জমা নেবে না হাইকোর্ট।

অন্যদিকে, হাইকোর্টের ওই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী ও রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তখন শীর্ষ আদালত হলফনামা জমা নেওয়ার নির্দেশ দেয় হাইকোর্টকে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশানুসারে, তিনপক্ষের হলফনামা জমা দেওয়ার এই মর্মে কলকাতা হাইকোর্টের বেঞ্চে একটি আবেদন দাখিল করতে হবে। সেই আবেদন শুনানির পরেই তিন জনের হলফনামা গ্রহণ করেছে উচ্চ আদালত।