আগামী দু’বছরেই প্রাণের সন্ধান মিলতে পারে মঙ্গলে, দাবি নাসার

708
Image Source: Google

বিশেষ প্রতিবেদনঃ ২০২১ সালের মধ্যেই মঙ্গল গ্রহে প্রাণের সন্ধান মিলবে বলে জানালেন নাসার প্রধান বিজ্ঞানী জিম গ্রিন। তবে তিনি আশঙ্কা করেছেন, দু’বছর পর সেই আবিষ্কারের জন্য তৈরি নাও থাকতে পারে পৃথিবী। যদি সবকিছু ঠিক থাকে, তবে ২০২১ সালের মার্চেই লালগ্রহে নামবে তারা। এবং সেখানে প্রাণের সন্ধানও পাওয়া যাবে।

ইতিমধ্যেই রোজালিন্ড ফ্র্যাংকলিন রোভারকে ইএসএ-এর এক্সোমার্স মিশনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। যা ভিনগ্রহে প্রাণের অস্তিত্বের প্রমাণ সন্ধান করবে। মঙ্গলগ্রহের মাটির নমুনা সংগ্রহের জন্য গভীর খননের পরিকল্পনাও রয়েছে রোভারের। গ্রিন বলেন, “মঙ্গল ছাড়া অন্য কোথাও সভ্যতার উন্মেষ ঘটেনি, এমনটা ভাবার কোনও কারণ নেই। সাম্প্রতিককালে আমাদের সৌরজগতের বাইরে ভিন্ন নক্ষত্রমণ্ডলীতে একের পর এক গ্রহ আবিষ্কৃত হচ্ছে। সেখানে প্রাণের সন্ধান মিললে আশ্চর্য হওয়ার কোনও কারণ নেই।”

গবেষণায় দেখা গেছে, অতীতে যে সমস্ত গ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব নেই বলে মনে করা হয়েছিল, সেখানে কোনও সময় প্রাণের অনুকূল পরিবেশ থাকার সম্ভাবনা ছিল। সম্প্রতি জানা গেছে, শুক্রগ্রহে ৩০ কোটি বছর আগে ৩০ থেকে ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বজায় থাকত। নাসার নিজস্ব ‘মার্স ২০২০’ অভিযানেও মঙ্গলের পাথুরে ভূস্তরে ড্রিল করে পৃথিবীতে নমুনা পাঠানোর জন্য ব্যবহার করা হবে মার্স হেলিকপ্টার। গ্রিনের দাবি, এই অভিযানেই খোঁজ পাওয়া যেতে পারে ভিনগ্রহের প্রাণীদের।

আরও পড়ুনঃ  পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জলের সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, হুমকি মোদির

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.